২০শে অক্টোবর, ২০২০ ইং, মঙ্গলবার, ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিক্ষক কর্মচারীদের শ্রান্তি বিনোদন ভাতার সকল খুটিনাটি

শ্রান্তি বিনোদন ভাতা নিয়ে বিস্তারিত জানতে প্রথমে জেনে নেয়া যাক শ্রান্তি বিনোদন ভাতা কি? আজকের আয়োজনে শ্রান্তি বিনোদন ভাতা আদ্যোপান্ত, খুঁটিনাটি ও সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে আলোচনা করা হবে। শিক্ষা অফিস সহ বিভিন্ন সরকারি অফিস থেকে যা পেতে কোন কোন ক্ষেত্রে বিড়ম্বনার শিকার হতে হয়। অনেক ক্ষেত্রে মূল বেতনের তিন ভাগের এক ভাগ দেওয়া হয়ে থাকে! কখনো ৩ বছর, কখনো ৪ বছর, কখনো ৫ বছর ও লেগে যায় এই ভাতাটি পেতে। চাকুরী গত বিষয়ে এ সকল ব্যাপারে সম্যক ধারণা থাকাটা গুরুত্বপূর্ণ।

শ্রান্তি বিনোদন ভাতাঃ প্রত্যেক সরকারী চাকরিজীবী তার প্রথম যোগদানের তারিখ হতে ৩ বছর পর পর যে ভাতা প্রাপ্ত হন, তাকে শ্রান্তি বিনোদন ভাতা বলে। তথ্যসূত্রঃ বাংলাদেশ চাকুরী বিধি-১৯৭৯। শিক্ষকরা এই ভাতাকে ‘রেস্ট অন্ড রিক্রিয়েশন’ ভাতা নামেও অভিহিত করে থাকেন। বিধি মোতাবেক এই ভাতার উৎস নাম “Recreation Allowance” বা শ্রান্তি বিনোদন ভাতা বলা হয়।

২. কে বা কারা পাবেন শান্তি বিনোদন ভাতাঃ
শ্রান্তি বিনোদন ভাতা শুধুমাত্র যারা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নিয়মিত কর্মচারী তারাই প্রাপ্ত হবেন। চুক্তিভিত্তিক অনিয়মিত কর্মচারী,ওয়াক চার্জ স্টাফ ও আনুসাঙ্গিক স্টাফবৃন্দ এই ভাতা প্রাপ্ত হবেন ‘না’।
# এছাড়া শ্রান্তি বিনোদন ভাতা প্রাপ্ত হতে হলে ছুটি বা Leave যা ১৫ দিনের কম নয় এমন ভ্যাকেশন বা অবকাশ ভোগ করতে হবে।
# শ্রান্তি বিনোদন ভাতা আবেদনকারী সরকারি কর্মচারীর বয়স অবশ্যই তিন বছর পূর্ণ হতে হবে।
# হ্যাঁ, তবে জনস্বার্থে যদি কোন কর্মচারী শ্রান্তি বিনোদন ভাতা সহ কমপক্ষে ১৫ দিনের ছুটি মঞ্জুর করা সম্ভব না হয় সে ক্ষেত্রে তিনি যখনই ছুটিতে থাকবেন তখনই এই ভাতা মঞ্জুর করা হবে।
এ সম্পর্কে বিশেষ কিছু জটিলতা বিশেষ করে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য দেখা গিয়েছে তা নিয়ে আমরা আরেকটি পোস্টে আলোচনা করব।

৩. কী কী পাবেন শ্রান্তি বিনোদন ভাতা সাথেঃ
শ্রান্তি বিনোদন ছুটি প্রাপ্ত কর্মচারী কমপক্ষে পনের দিনের ছুটি ও এক মাসের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ বা টাকা প্রাপ্ত হবেন।
এছাড়া ছুটিতে থাকা কালীন বেতন ও প্রাপ্ত হবেন।
এখন কেউ যদি প্রশ্ন করেন, যদি কেহ শ্রান্তি বিনোদনের ছুটি না গ্রহণ করে সে কি শ্রান্তি বিনোদন ভাতা পাবেন অথবা যদি কেহ ঠিক সময় আবেদন না করেন তবে কি তিনি শ্রান্তি বিনোদন ভাতা পাবেন? উত্তর আসবে, ‘না’।
তবে এক্ষেত্রে তিনি যখনই ছুটিতে গমন করবেন তখনই এই ভাতা প্রাপ্ত হবেন। এক্ষেত্রে উল্লেখ্য শ্রান্তি বিনোদনের ছুটিকে বহিঃবাংলাদেশ ছুটিতেও রূপান্তর করার সুযোগ আছে যেটা নিয়ে ভবিষ্যতে আলোচনা করা হবে।

৪. কী করতে হবে শ্রান্তি বিনোদন ভাতা পেতে হলেঃ
শ্রান্তি বিনোদন ভাতা পেতে অবশ্যই ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর লিখিত আবেদন করতে হবে।
এক্ষেত্রে সামগ্রিক আবেদন করতে দেখা গেছে।
২৩.০৩.১৯৮৯ ইংরেজি তারিখের একটি পরিপত্র অর্থমন্ত্রণালয়ের প্রবিধি শাখা থেকে এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে শ্রান্তি বিনোদন ভাতার আবেদনে অবশ্যই।
১. চাকুরীতে নিয়োগের তারিখ:
২. বিগত শ্রান্তি ও বিনোদন ছুটি শুরুর তারিখ:
৩. ছুটি শেষ হওয়ার পরের দিনের তারিখ:
৪. আবেদন পত্রের তারিখ উল্লেখ করতে হবে।

কখন পাবেন শ্রান্তি বিনোদন ভাতাঃ
প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর ২০০৫ সনে ৭ ই মে তারিখে এক প্রজ্ঞাপনে জানায় যে, যে কোন উপলক্ষে পনের দিন বা তার চেয়ে বেশি দিন ছুটি থাকলে সেই ছুটিতে শিক্ষকদের বিধিমোতাবেক শ্রান্তি বিনোদন ছুটি ও ভাতা প্রদান করা যাবে।

ফেসবুকে লাইক দিন