৩০শে অক্টোবর, ২০২০ ইং, শুক্রবার, ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

এই মুহুর্তে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার কোন অবস্থা নেইঃ শিক্ষা মন্ত্রী

দৈনিক বিদ্যালয় ডেস্কঃ
‘ইরাব’ এডুকেশন রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন বাংলাদেশের আয়োজনে আজ ২৭ জুন ২০২০ তারিখে ০১ টায় ৩০ মিনিটে মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি, এমপি, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের মাননীয় সচিব, মো. মাহবুব হোসেন, জনাব, রাশেদা কে চৌধুরী, ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. মনজুর আহমদ, ভিকারুননিসা নুন স্কুল ও কলেজের সহকারী অধ্যাপক ড. ফারহানা খানম ও ইরাবের সভাপতি, সম্পাদক ও সদস্যদের সমন্বয়ে আজ এক যুম সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভাটি সরাসরি ইরাবের পেইজ ও গ্রুপ থেকে প্রচারিত হয়। আজকের এই সমাবেশের আলোচনার বিষয় ছিল “করোনায় শিক্ষার চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণে করনীয়”।

উক্ত সভায় ইরাবের সদস্য ও বিভিন্ন পত্রিকার শিক্ষা প্রতিবেদকবৃন্দ করোনাকালীন সময়ে শিক্ষা ক্ষেত্রের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরে তা কিভাবে উৎরানো যায় এ বিষয়ে সংক্ষেপে আলোচনা করেন।
শিক্ষা সাংবাদিকবৃন্দ করোনার ফলে দারিদ্রতা, ঝরেপড়া, বাল্যবিবাহ, প্রাথমিকের সমাপনী পরীক্ষা, মাধ্যমিক এর পরীক্ষা, পরবর্তী শ্রেণিতে প্রমোশন, অনলাইন ক্লাস বিষয়ের চ্যালেঞ্জ ও করনীয় নিয়ে আলোচনা করেন।
উক্ত যুম সভায় ড. ফারহানা খানম নন এমপিও শিক্ষকদের করোনা কালীন সময়ে প্রনোদনা প্রদান করায় ও সর্বশেষ এমপিও ভুক্তির জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি তার বক্তব্যে টিউশন ফি বিষয়ে মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রীর কাছ থেকে সুনির্দিষ্ট এক্টি নির্দেশনা প্রদানের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

উক্ত যুম সভায় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগীয় সচিব জনাব মো. মাহবুব হোসেন সাংবাদিকবৃন্দকে শিক্ষক ও অভিভাবকবৃন্দ যাতে হতাশ না হয় এমন ইতিবাচক সংবাদ তুলে ধরার আহবান জানান।

সবশেষ, শিক্ষা মন্ত্রী ডা. দীপু মনি তার বক্তব্যে প্রায় প্রতিজন সাংবাদিক ও অতিথিদের নোটকৃত প্রশ্নের জবাব দেন। তিনি বলেন, কারিগরি, আইসিটি সহ সকল ক্ষেত্রে কাংখিত দক্ষতা ও শিখন ফল অর্জিত না হলে সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে না। তিনি প্রতিবন্ধকতা আছে এমন শিশুদের উপযোগী করে যাতে অনলাইন ক্লাস প্রস্তুত করা যায় সে বিষয়ে পদক্ষেপ নিবেন বলে জানান।
তিনি বলেন “এই মুহুর্তে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার কোন অবস্থা নেই” তবে করোনা স্বাভাবিক হতে দেরি হলে আগামী বছরের ২-১ মাস পর্যন্ত সেশন বৃদ্ধি করা যায় কিনা তা নিয়ে ভাবছে তার মন্ত্রালয়।
এ বছর যাদের এস এস সি পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল, তাদের জন্য সিলেবাস কমবে না, তবে যতটা কম পরীক্ষা নেওয়া যায় সে বিষয়ে মন্ত্রালয় ভাবছে বলে জানান তিনি। এছাড়া পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ১৫ দিনের মধ্যে এস এস সি পরীক্ষা গ্রহনের কথা বলেন মাননীয় মন্ত্রী ডা. দীপু মনি।
এ ছাড়া দক্ষতা ও শিখন ফল ভিত্তিক কারিকুলাম সংক্ষেপন নিয়ে কাজ চলছে বলে জানান তিনি। এছাড়া যে সমস্ত শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাসে অংশ গ্রহন করার জন্য কোন ধরনের ডিভাইস নেই, তাদের জন্য কী করা যায় সে বিষয়েও শিক্ষা মন্ত্রালয়ের ভাবনার কথা তুলে ধরেন তিনি।

উক্ত অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনায় ছিলেন ইরাবের বর্তমান সভাপতি মুসতাক আহমদ এবং আরো বক্তব্য রাখেন ইরাবের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক নিজামুল হক। উক্ত লাইভ সভাটি প্রায় ০১ ঘন্টা ৩০ মিনিট সময় ধরে সম্প্রচারিত হয়।

ফেসবুকে লাইক দিন