দৈনিক বিদ্যালয় ডেস্কঃ করোনায় এ পর্যন্ত প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এর আওতাধীন চাকুরীরত যারা মৃত্যু বরণ করেছে, আক্রান্ত হয়েছে ও আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছে, তাদের সম্পর্কে নিম্নে বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে।

করোনায় মৃত্যু অফিসারবৃন্দঃ

এ পর্যন্ত মোট ২ জন প্রাথমিক শিক্ষায় চাকুরী রত অফিসারের মৃত্যু হয়েছে। যারা হলেন-

১. মো: আজাদুর রহমান, ইন্সট্রাক্টর, উপজেলা রিসোর্স সেন্টার, কেরানীগঞ্জ, ঢাকা, ঢাকা।

২. মো: খলিলুর রহমান, সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, ভোলা, বরিশাল।

করোনায় মৃত্যু কর্মচারীঃ

এ পর্যন্ত মোট ০১ জন প্রাথমিক শিক্ষায় চাকুরী রত কর্মচারীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি হলেন-

১. মাহমুদুল হক, কম্পিউটার অপারেটর, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, মানিকগঞ্জ, ঢাকা।

করোনায় মৃত্যু প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দঃ

করোনায় মোট প্রধান শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে মোট ০৫ জন শিক্ষক এবং সহকারী শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে মোট ০৮ জনের।

এ পর্যন্ত মোট ১৩ জন প্রাথমিক শিক্ষায় চাকুরী রত অফিসারের মৃত্যু হয়েছে। যারা হলেন-

১. আব্দুল কাদের, সহকারী শিক্ষক, চন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, হাটহাজারী, চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম।

২. শেখ আব্দুল আজিজ, প্রধান শিক্ষক, মাসকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ফকিরহাট, বাগেরহাট, খুলনা।

৩. আল মামুন, সহকারী শিক্ষক, পূর্ব বয়রা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সদর, খুলনা, খুলনা।

৪. মো: আরশ আলী, সহকারী শিক্ষক, ঘিলতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দোয়ারা বাজার, সুনামগঞ্জ, সিলেট।

৫. মো: গোলাম রব্বানী, প্রধান শিক্ষক, বুড়ইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, নন্দীগ্রাম, বগুড়া, রাজশাহী।

৬. সালেহ আহাম্মেদ, সহকারী শিক্ষক, বন গবেষণাগার সপ্রাবি, পাঁচলাইশ, চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম।

৭. রুমিচা আক্তার, সহকারী শিক্ষক, সোনাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মোড়লগঞ্জ, বাগেরহাট, খুলনা।

৮. সোহেল রানা, সহকারী শিক্ষক, দক্ষিণখার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দেবীদ্বার, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম।

৯. মো: হাবিবুর রহমান, প্রধান শিক্ষক, পূর্ব বড়কান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, নিকলী, কিশোরগঞ্জ, ঢাকা।

১০. মো: আনিসুর রহমান, সহকারী শিক্ষক, দুর্গাবর্দী ১নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সদর, মাদারীপুর, ঢাকা।

১১. মো: নুরুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক, যাত্রাবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সদরপুর, ফরিদপুর, ঢাকা।

১২. খয়বর আলী, প্রধান শিক্ষক, উদয়ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, গুলশান, ঢাকা, ঢাকা।

১৩. ফারহানা শবনম, সহকারী শিক্ষক, উত্তর পাহাড়তলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পাহাড়তলী, চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম।

উল্লেখ্য, এ পর্যন্ত প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এর আওতাধীন যেমন অফিসার, কর্মচারী ও শিক্ষকদের মধ্য থেকে আক্রান্ত হয়েছে-

মোট কর্মকর্তা: ৮৪ জন,

 মোট শিক্ষক: ৫০৪ জন,

মোট কর্মচারী: ৪৮ জন,

মোট শিক্ষার্থী: ২২ জন।

এছাড়া একজন দপ্তরী ও এই অতিমারি করোনায় মারা গেছে।

সর্রমোট হিসাবে দেখা যাচ্ছে, এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে বাংলাদেশের প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরাধীন মোট আক্রান্ত হয়েছে ৬৫৮, চিকিৎসাধীন আছে মোট ৫০৮, সুস্থ হয়েছে মোট ১৩৪ জন এবং মৃত্যু ঘটেছে মোট ১৬ জনের।

উল্লেখ্য গত ১৭ ই মার্চ তারিখ থেকে বাংলাদেশে করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু হয়ে একজন মৃত্যু বরণ করলে সেখান থেকেই প্রাথমিক বিদ্যালয় সমুহ বন্ধ থাকলেও শিক্ষা অফিস সমুহ কিছুদিন বন্ধ থাকলেও এখন পর্যন্ত খোলা আছে। তবে শিক্ষকবৃন্দকে ত্রাণের তালিকা করা সহ বিভিন্ন সময়ে বিদ্যালয় ও স্কুল ক্যাচমেন্ট এলাকার অভিভাবকদের নিকট যেতে হয়েছে বলে জানা গেছে।

সূত্রঃ প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

(ডিবি আর,আর)