৩০শে অক্টোবর, ২০২০ ইং, শুক্রবার, ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

নাজরিন আখতার এর কবিতা

কবিতার পাতা

শোকের মাস
-নাজরিন আখতার

তোমাদের রক্তে রঞ্জিত এ মাটি এ দেশ,
সকল শহীদকে জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা অনিমেষ।
মুজিব, তুমি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি প্রাণ,
লাল সবুজের মাঝে আছো চির অম্লান।
মরণি তুমি, থাকবে অনাদিকাল বাংলার মানচিত্রে,
তোমাদের স্মরণ করি শোকের মাস আগস্টের বৃত্তে।
পনেরোই আগাস্ট শাহাদাত বরণকারী বঙ্গবন্ধু,
স্বাধীনতার মহান স্থাপতি জাতির জনক মানববন্ধু।
চারিদিকে নামে শোকের ছায়া কান্না ভাঙ্গে পাঁজরে,
বাংলার হৃদয়ে শান্তির পায়রা মূর্ছে কাঁদে অঝোরে।
সবুজের বুকে ক্ষণে ক্ষণে জেগে ওঠে বিস্মৃতি,
ভুলিনি ভুলবোনা কোনো দিন অতিতের বিভ্রান্তি।
তোমার বুকে মাথা রেখে ঘুমিয়ে আছে সবুজ মাঠ,
বেদন মুখে করুণ চোখে তাকিয়ে থাকে বিভ্রাট।
বুকের তাজা রক্তে দিয়ে দলিল করেছো বাংলাদেশ,
ওরা ভাবেছিলো মুজিব মরে বাংলা হবে শেষ।
তুমি বেঁচে রবে চিরকাল অম্লান সকলের অন্তরে,
তোমার চেতনায় বেঁচে থাকবো ওই বুকে সন্তরে।

নিরব কান্না
-নাজরিন আখতার

নিরব কান্নায় ভাঙে পাঁজর
সইতে পারিনা মনে,
সবুজ পত্র-পল্লবে ঘুরে ঘুরে
আসি ফের বনে।
বৃষ্টি পড়ার ঝরঝর শব্দ
এখনো ভেসে আছে,
নিরব কান্না লুকিয়ে থাকে
মায়া মমতার কাছে!
রাতে শিউলী ফোটে ও ঝরে
এটাই তার ধারা,
সকাল বেলা স্মৃতির টানে
মাতায় ভুবন পাড়া।
দু’হাত ভরে শিশির ভেজা
শিউলী আনি ঘরে,
ফেলতে পারিনা পিছন ফিরে
আঁখিজলে রাখি ভরে।
স্মৃতির আকাশে দেখা দিলে
উড়ে যায় মন,
পুরো বেলা কী সন্ধ্যা পরে
জেগে ওঠে অনুক্ষণ।
মায়াবী মনে নরম ছোঁয়া
ব্যথায় হলো কাতর,
সেদিক ফিরে তাকিয়ে দেখি
তুমি ছিলে আমার পর!

মায়ের কবর
-নাজরিন আখতার

এতিম হয়ে দাঁড়িয়ে আছি মা
তোমার কবরের পাশে,
চোখ দুটো খুলে দেখ মা
এখনো আছি আশে।
চির নিদ্রায় শুয়ে আছ
অমোঘ প্রথা মেনে,
বিয়োগ ব্যথায় কতো কাতর
অন্তর্যামী তা জানে।
তোমার হাতে পিটনি খেয়েছি
ছোট বেলায় যতো,
পড়াশুনা করতামনা মা
গল্প শুনাতা কতো।
মাগো তোমার হাত দিয়ে
করতা অনেক রান্না,
খাবার খেতে বসি যখন
শুধু পাচ্ছি কান্না।
মনের কথা বলবো কাকে
শুনবে নাতো কেউ,
আমি এখনো কষ্টে আছি
সবাই করছে হেউ।
পাষান হয়ে আছো তুমি
একলা মাটির ঘরে,
জান্নাতুল ফেরদাউস বানিয়ে দিও
মায়ের কবর টারে।

ফেসবুকে লাইক দিন