২৮শে অক্টোবর, ২০২০ ইং, বুধবার, ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

১৫ সন্তানের পরেও আবার যে মা গর্ভবতী : নিতে চান আরো!

এই দম্পতির বাড়িতে গেলে মনে হবে, এটা বুঝি কোনও ছোটদের বিদ্যালয়। হই-হুল্লোড় লেগেই আছে সব সময়। এ কাঁদছে তো ও হাসছে। এই মারামারি তো পরক্ষণেই দল বেঁধে চিৎকার। এর বায়না মেটাতে না মেটাতেই আর একজনের শুরু হয়ে গেল। কিন্তু এ সবে যেন কোনও ক্লান্তিই নেই।

সেই মা প্যাটি ২৫ বছর বয়সে প্রথম মা হন ২০০৮ সালে। এর পরে গত ১২ বছরে ১৫ জনের জন্ম দিয়ে এখন ১৬ তম সন্তানের অপেক্ষায়। পাঁচটা ঘর রয়েছে হেরনানডেজদের বাড়িতে। এই বাড়ির সব ছেলেমেয়েদের মধ্যে একটা মিল রয়েছে। বাড়ির কর্তার নাম যেহেতু কার্লোস, তাই সব ছেলেমেয়ের নাম রাখা হয়েছে ইংরেজি ‘সি’ বর্ণ দিয়ে।

ক্রিস্টোফার, কার্লা, ক্যালভিন, কারোলিন ইত্যাদি। যাঁরা একটি-দু’টি সন্তান নিয়ে হিমশিম খান তাঁরা তো ভাবতেই পারবেন না, এত বাচ্চা কী করে সামলানো হয়। প্যাটি জানিয়েছেন, কাজটা বেশ কঠিন। জন্ম দেওয়া থেকে লালন-পালন সবটাই বেশ কষ্টের। কিন্তু সেই কষ্টের মধ্যেই আনন্দ পান তাঁরা। বড় ছেলেমেয়েরাও ছোটদের সামলানোর কাজ করে। খরচও তো কম নয়! জানা গিয়েছে, সপ্তাহে শুধু ডায়াপার বাবদই খরচই হয় ৫০০ ডলারের আশপাশে।

কমপাস ডটকম এর সুত্র থেকে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর ক্যারোলিনার একজন মহিলা ১৫ টি শিশু প্রসব করেছেন, এখন সে ১৬ তম সন্তানের মা হওয়ার জন্য গর্ভবতী এবং তাদের সকলের নাম দেওয়া হয়েছে ইংরেজি বর্ণ সি আদ্যাক্ষরে।

মহিলার নাম প্যাটি হার্নান্দেজ (৩৮) এবং তার স্বামীর নাম কার্লোস হার্নান্দেজ (৩৭)। যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর ক্যারোলাইনা শার্লোটে একটি পাঁচটি কক্ষ বিশিষ্ট ঘরে তাদের সন্তানের সাথে বসবাস করছে এই দম্পতি।

তাদের ০৫ টি ছেলে এবং ১০ টি মেয়ে আছে। সূত্রঃ মিরর। এই দম্পতির শিশুদের নাম হল এমনঃ কার্লোস জুনিয়র, ক্রিস্টোফার, কারলা, ক্যাটলিন, ক্রিস্টিয়ান, সেলস্টে, ক্রিস্টিনা, ক্যালভিন, ক্যাথরিন, ক্যারল, কালেব, ক্যারোলিন, ক্যামিলা, চার্লি এবং ক্রিস্টাল।

এই পরিবারটি ২০১২ সালে প্রথম ভাইরাল হয়েছিল। ভাইরাল হওয়ার পর থেকে প্যাটি আরও দুটি বাচ্চা নেন। চার্লি যিনি মে ২০১৯ সালে জন্মগ্রহণ করে এবং ক্রিস্টাল যিনি এই ২০ সালের এপ্রিলে মহামারীর মধ্যে জন্মগ্রহণ করে। এতগুলি বাচ্চাদের লালনপালন করা চাপ তৈরি হতে পারে তা স্বীকার করার পরেও ১৫ সন্তানের মা আরও বেশি বাচ্চা থাকতে পছন্দ করে।

তিনি বলেন, “এটি নবজাতকের সাথে কিছুটা চাপ এবং কষ্টকর। বাচ্চারা সবসময় কাঁদে এবং আমাকে তাদের যত্ন নিতে হয়। তবে এটি আমার জন্য আশীর্বাদ, আমরা এটি উপভোগ করি।

১৫ সন্তানের মা প্যাটি স্বীকার করেছেন যে তিনি এবং তার স্বামী কোনও গর্ভনিরোধক ব্যবহার করেন না। প্যাটি বলেন, “আমরা বিধাতার কাছে সমস্ত কিছুর ভার দিয়েছি যাতে তিনি যখনই কিছু দিতে চান, তাতে আমরা আনন্দিত হই।” ২০০৮ সাল থেকে প্যাটি তার সন্তানের জন্ম দেওয়া শুরু করে। প্যাটি বলেন, “আমার সন্তান জন্মের প্রায় তিন মাস পরে আমি সাধারণত আবার গর্ভবতী হয়ে যাই। তিনি বাড়ির বাচ্চাদের কাজ পরিষ্কার করতে অংশ নিতে বড় বাচ্চাদের প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। “এই মুহুর্তে আমার এক হাজার কাপড় ধুতে হবে। অন্তত দু’দিন পরে কাপড় ভাঁজ করতে পাঁচ ঘন্টা সময় লাগে,”তিনি বলেন।

প্যাটি এবং কার্লোস তাদের বৃহত্তর পরিবারকে ভালবাসে এবং তারা যে মনোযোগ পাবে তা ক্রমাগত বিনোদনের সাথে থাকে।

প্যাটি বলেছিলেন, “লোকেরা আমাকে সর্বদা জিজ্ঞাসা করে,‘ তারা কি আপনার সমস্ত শিশু? ’আমার কয়টি বাচ্চা আছে তা যখন তারা জানতে পারে তখন তারা অবাক হয়, বিশেষত আমি কৃপণ বলে,” প্যাটি বলেন।

সন্তান বিধাতার দান। তাই তাদেরকে আসতে বাঁধা দিতে নেই। জন্মনিয়ন্ত্রণ প্রকৃতি বিরুদ্ধ বলেই মনে করেন আমেরিকার নর্থ ক্যারোলাইনার এই দম্পতি। আর সেই বিশ্বাসের জেরেই একে একে ১৫ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন তাঁরা। একটি সন্তান ভূমিষ্ঠ হতে না হতেই মাস তিনেকের মধ্যে গর্ভবতী হন প্যাটি হেরনানডেজ। সেই ধারা মেনেই ফের তিনি গর্ভ ধারণ করেছেন। কনিষ্ঠটির বয়স মাস তিন মাস। সূত্রঃ World Today News. Mirror.

প্রেস রিলিজ : অতিশীঘ্রই প্রাথমিক শিক্ষকরা উচ্চধাপে বেতন নির্ধারণ করতে পারবেন
প্রাথমিকে ২৬ হাজার ও ১৪ হাজারের বিশাল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি আসছে

ফেসবুকে লাইক দিন