২৮শে অক্টোবর, ২০২০ ইং, বুধবার, ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

আল্লামা হামিদীর জানাজায় লাখো মানুষের ঢল

খ ম জুলফিকার : বরুণার পীর ও আমীরে হেফাজতে ইসলাম, শায়খুল হাদিস আল্লামা খলীলুর রহমান হামিদীর জানাজার নামাজ সম্পন্ন হয়েছে। এতে ইমামতি করেছেন তার দ্বিতীয় ছেলে ও বরুণা মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা শেখ বদরুল আলম হামিদী।

শুক্রবার বেলা ৩টা ২০ মিনিটে ঐতিহ্যবাহী বরুণা মাদরাসা মাঠে জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

মাদ্রাসার ভেতরে জায়গা সংকুলান না হওয়ায় ভীড়ের কারণে মরদেহ বহনকারী কফিন মাদ্রাসা মাঠ থেকে পশ্চিম দিকে পুরনো মসজিদের পাশে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকেই নামাজে জানাজা পরিচালিত হয়। জানাজা শেষে বরুণা মাদ্রাসা ক্যাম্পাস সংলগ্ন পারিবারিক কবরস্থান শায়খে বর্ণভী রাহ. এর পাশে তাকে দাফন করা হবে।

জানাজার পূর্বে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় অংশ নেন সাবেক চিফ হুইপ, আলহাজ্ব উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদ এম পি, মৌলভীবাজার পৌর সভার মেয়র মোঃ ফজলুর রহমান, শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী অফিসার নজরুল ইসলাম।

দেশবরেণ্য আলেমদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শেখবাড়ি জামিয়ার মুহতামিম, শায়খুল হাদিস আল্লামা মুফতি রশিদুর রহমান ফারুক বর্ণভী, বরুণার প্রিন্সিপাল মাওলানা বদরুল আলম হামিদী, মাওলানা হাফেজ ওলিউর রহমান বর্ণভী, বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ (বেফাক) কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি শায়খুল হাদিস আল্লামা আব্দুল বারি ধর্মপুরী, বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের (বেফাক) মহাপরিচালক অধ্যাপক মাওলানা যুবায়ের আহমদ চৌধুরী, বেফাকের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, শায়েস্তাগঞ্জ নূরে মদীনা মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা নুরুল ইসলাম ওলিপুরী, সিলেটের জামেয়া নূরিয়া ভার্থখলা মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মাজদুদ্দীন আহমদ, গহরপুর জামিয়ার প্রিন্সিপাল মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন রাজু, বানিয়াচং ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দাল হোসেন খান, মৌলভীবাজার দারুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম শায়খুল হাদিস আল্লামা মুফতি শামছুজ্জোহা, খেলাফত মজলিসের যুগ্ন মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ মুনতাসির আলী, বড়লেখা সরকারি কলেজের অধ্যাপক মাওলানা আব্দুস সবুর, মাওলানা সৈয়দ মুজাদ্দিদ আলী, ইসলামী ফাউন্ডেশন হবিগঞ্জ জেলার পরিচালক মাওলানা শাহ নজরুল ইসলাম, খেলাফত মজলিস জেলা সভাপতি মাওলানা আহমদ বিলাল, বিভিন্ন মাদ্রাসার প্রিন্সিপালগণ -সহ শতাধিক আলেম।

আল্লামা খলীলুর রহমানে মৃত্যুর খবরে বৃহস্পতিবার রাত ২টা থেকেই দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ছুটে আসেন লাখো ভক্ত অনুসারী। জুমআর নামাজের আগেই লোকে লোকারণ্য হয়ে যায় বরুণা মাদ্রাসা প্রাঙ্গণসহ পুরো বরুণা এলাকা।

চারদিক থেকে আসা মানুষের সহায়তায় বরুণা ও ততার আশপাশ রাস্তায় শুকনো খাবার ও শরবতসহ নানা পানীয় নিয়ে বিতরণ করছেন এলাকাবাসী ও মাদরাসা শিক্ষার্থীরা। বরুণা সব প্রবেশ পথে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। ভৈরবাজার থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার পায়ে হেটে হেটে মানুষ বরুণায় উপস্থিত হন। আজকের এই জানাজা সাম্প্রতিক সময়ের মৌলভীবাজার জেলার সবচেয়ে বৃহত্তম জানাজায় পরিণত হয়েছে।

শ্রীমঙ্গলের জামিয়া লুৎফিয়া আনোয়ারুল উলূম বরুণার মুহতামিম ও শায়খুল হাদিস আল্লামা খলিলুর রহমান হামিদী দীর্ঘদিন এ্যাজমার কারণে ফুসফুসের সমস্যায় আক্রান্ত, ডায়াবেটিস এবং হাই প্রেসারসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। গত ৯ সেপ্টেম্বর আল্লামা শায়খ খলিলুর রহমান হামিদী শারিরিক অবস্থার অবনতি হলে সিলেট মহানগরের নর্থ ইষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার উন্নতি হলে বরুনার বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। ফের অবস্থার অবনতি হলে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানেই তিনি বৃহস্পতিবার (৯অক্টোবর) রাত পৌনে ২টায় তিনি মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ৫ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। শায়খুল হাদিস আল্লামা খলিলুর রহমান হামিদী দীর্ঘদিন বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের (বেফাক) কেন্দ্রীয় সহ সভাপতির দায়িত্ব পালন করছিলেন। তিনি ৬০ বছর যাবৎ হাদিসের মসনদে সমাসিন ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে দেশের শীর্ষ আলেম ও যুগশ্রেষ্ঠ বুজুর্গ এবং আধ্যাত্মিক রাহবরকে হারিয়ে সিলেটবাসী শোকাহত। ইসলাম প্রচার প্রসার ও জাতির খেদমতে তাঁর অবদান জাতি আজীবন স্মরণ রাখবে।

দৈনিক বিদ্যালয় এর নিউজ সমুহ সরাসরি দেখতে dainikbidyaloy.com লিখে google সার্চ দিন।

ফেসবুকে লাইক দিন