২০শে অক্টোবর, ২০২০ ইং, মঙ্গলবার, ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকদের ১৩ তম গ্রেড প্রাপ্তির সর্বশেষ খবর

দেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের জন্য ঘোষিত ১৩ তম গ্রেডের বেতন সংশয় কেটে যাবে খুব দ্রুত। এ বিষয়ে সরকারি কর্মচারীদের বেতন, ভাতা দেওয়ার জন্য নির্ধারিত সফটওয়্যার IBAS প্লাস প্লাস সফটওয়্যার সিস্টেমে ১৩ তম গ্রেডের উচ্চধাপে বেতন নির্ধারণ সংক্রান্ত বিষয়টি সংযোজন করা হচ্ছে। জানাগেছে, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এক আদেশ জারি করে বিষয়টি শিক্ষকদেরকে জানিয়ে দেবে।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন ও ভাতা দেওয়ার জন্য নির্ধারিত সফটওয়্যার ‘আইবাস প্লাস প্লাস’ এর সমস্যা ছিল, এতে ১৩ তম গ্রেডে নিম্নধাপে বেতন নির্ধারণ করা যায়, উচ্চধাপে করা যায় না। এর ফলে শিক্ষকরা সফটওয়্যারে মাধ্যমে নিজেদের উচ্চধাপে বেতন ফিক্সেশন করতে পারছিলেন না। সেজন্য সফটওয়্যারটিকে আপডেট করতে অর্থ বিভাগকে অনুরাধ জানায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এরপর, অর্থ বিভাগ ‘আইবাস প্লাস প্লাস’ মডিউলের সিস্টেমে প্রাথমিক শিক্ষকদের উচ্চধাপে মূল বেতন নির্ধারণের বিষয়টি সংযোজন করছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন বলেন, অর্থ বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করে বিষয়টির সমাধান করা হচ্ছে এবং আগামী সপ্তাহে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হবে।

এ বিষয়ে উল্লেখ্যঃ দেশের ৬৫ হাজার ৬২০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩ লাখ ৫২ হাজার সহকারী শিক্ষক জাতীয় বেতন স্কেলের ১১ তম গ্রেডে বেতনের দাবিতে দীর্ঘদিন আন্দোলন করে আসছিলেন কিন্তু শেষ পর্যন্ত ১৩ তম গ্রেডে সহকারী শিক্ষকদের বেতন নির্ধারণ করেছে সরকার। এ বিষয়ে গত ০৯ ফেব্রুয়ারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের জন্য ১৩ তম গ্রেডে বেতন নির্ধারণের আদেশ জারি করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

কিন্তু ১৩ তম গ্রেড প্রদান করলেও শিক্ষকদের মূল বেতন বৃদ্ধির জায়গায় আরো কমে যাচ্ছিল নিম্নধাপে বেতন নির্ধারণের কারণে। এটি নিয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করলে ও প্রাথমিক শিক্ষক নেতৃবৃন্দ সিনিয়র সচিব আকরাম-আল-হোসেনের সাথে কথা বললে তিনি ঘোষণা দেন, শিক্ষকদের বেতন উচ্চধাপে নির্ধারিত হবে, বেতন কমবে না।

বিষয়টি তুলে ধরে এরপর অর্থ মন্ত্রনালয়কে চিঠি দেয় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। সমস্যার সমাধানে ১৩ তম গ্রেডের উচ্চধাপে সহকারী শিক্ষকদের বেতন নির্ধারণ করা হয়। তবে এতে নতুন করে সমস্যা সৃষ্টি হয় বেতন ফিক্সেশনের ক্ষেত্রে। বেতন নির্ধারণ সংক্রান্ত ‘আইবাস’ সফটওয়্যারে ১৩ তম গ্রেডের উচ্চ ধাপে বেতন নির্ধারণ সংক্রান্ত বিষয় ইনপুট থাকায় উচ্চতর গ্রেডে শিক্ষকরা বেতন নির্ধারণ করতে পারেননি।

সবশেষে বলা যায়, ১৩ তম গ্রেডে উচ্চধাপে বেতন নির্ধারণের ফিক্সেশন করার জন্য আগামী সপ্তাহে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আদেশের পর থেকে আর কোন বাঁধা থাকবে না।

এ বছর কী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবে : যা বলছে মন্ত্রী, সচিব ও মহা-পরিচালক

প্রাথমিকের কারিকুলাম ও সময়ে আসছে বড় ধরনের পরিবর্তন

সিনিয়রিটি, পদোন্নতি, টাইমস্কেল বাতিল, টাকা ফেরত, মূলবেতন কমল প্রাথমিক শিক্ষকদের

‘দৈনিক বিদ্যালয়’ এর নিউজ নিয়মিত পেতে subscribe বাটনে চাপ দিন। google থেকে সরাসরি এই শিক্ষা বিষয়ক পত্রিকার নিউজ পড়তে dainikbidyaloy.com লিখে সার্চ দিন আর আপনার শিক্ষা, শিক্ষক বিষয়ক কোন লেখা পাঠাতে [email protected] ইমেইলে সেন্ড করুন।

ফেসবুকে লাইক দিন