২৫শে নভেম্বর, ২০২০ ইং, বুধবার, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

যা পড়লে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে আপনার চাকুরী হতে পারে

dainikbidyaloy.com

দৈনিক বিদ্যালয় বিশেষ : প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে এবার বড়-সড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ পেয়েছে। একই মেধা নিয়ে অন্যবারের চেয়ে এবার আপনি যদি চাকুরীর আবেদন করে থাকেন, তবে আপনার চাকুরী হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। কারণ হিসাবে উল্লেখ করা যায়, এবার নারী চাকুরী প্রার্থীদের সংখ্যা গত যে কোন সময়ের তুলনায় অর্ধেকর ও কম হবে।

বাংলাদেশর প্রেক্ষাপটে নারীদের বিবাহ হওয়ার প্রবণতা উচ্চমাধ্যমিক স্তরে অনেক বেশি। আর বিবাহোত্তর জীবনে সংসার নামক ঘানির গ্যাড়াকলে হারিয়ে যায় অনেক মেধাবী বালা। এছাড়া উচ্চমাধ্যমিক স্তরে যে কোন শিক্ষার্থীর স্মরণ শক্তি থাকে অনেক বেশি। স্নাতক পর্যায়ে যেয়ে যা হারাতে বসে।

এছাড়া দেশের ইতিহাসে এই প্রথম কোন প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে নারীদের শিক্ষার যোগ্যতা স্নাতক চাওয়া হয়েছে। সেহেতু নারী পার্থী কম থাকায় এবার পুরুষ প্রার্থীদের চাকুরী প্রাপ্তির সম্ভাবনা বেশি থাকবে।

অনেকে বলে থাকেন, টাকা আর মামা-খালু না হলে নাকি চাকুরী হয়না! কথাটি মোটেও ঠিক নয়। গত ২০১৪ সালের আবেদনে ২০১৮ সনে যাদের চাকুরী হয়েছে প্রাথমিকে আমি মনে করি তাদের প্রত্যেকেই নুন্যতম বিসিএস এর শিক্ষা ক্যাডারে চাকুরী পাওয়ার যোগ্য। যারা মনোযোগ দিয়ে লেখাপড়া করেন নি অথবা আই এম জিপিএ ফাইভ মার্কা রেজাল্ট ভালো করা পড়া পড়তে যেয়ে মৌলিক শিক্ষনীয় বিষয়গুলো এড়িয়ে গেছেন, তারাই এমন ডায়ালগ দিয়ে থাকেন; ‘যাদের টাকা আছে তাদের চাকুরী হয়।’ হ্যা, টাকা-পয়সায় ২ একজনের চাকুরী হতেও পারে! এক্ষেত্রে সত্যটা কী জানিনা।

যাইহোক আর বেশি কথা নয়, চলুন কী পড়লে, কিভাবে পড়লে আপনার চাকুরী নামক সোনার হরিণ আপনার কাছে ধরা দিবে একটু আলোচনা করা যাক।

মৌলিক বিষয়ে গুরুত্বারোপঃ

মৌলিক বিষয় সমুহ যথা বাংলার ব্যাকরণিক বিষয়াষয় যথা – # বর্ন ও ধ্বনি, দ্বিরুক্ত শব্দ -২, সন্ধি -১ বাক্য শুদ্ধি ও বানান -৩, সমাস -২, প্রকৃতি ও প্রত্যয় -১, বিপরীত শব্দ -১, শব্দ -১, সমার্থক শব্দ -১, এক কথায় প্রকাশ -১, বাগধারা-বাগবিধি -১, পদ প্রকরন -২, কারক ও বিভক্তি -২, বাক্য প্রকরন -১, উপসর্গ-অনুসর্গ -১, কাল, যতিচিহ্ন -১, অধুনিক যুগ, রবি, নজরুল -১, পত্রিকার সম্পাদক , ছদ্মনাম , উপাধি -১, মুক্তিযুদ্ধ গ্রন্থ , উপন্যাস -১. বিষয়ে আপনাকে যথার্থ গুরুত্ব দিয়ে পড়তে হবে। [এখানে বিষয় ভিত্তিক কী কী প্রশ্ন আসতে পারে, তার মান সহ উল্লেখ করা হয়েছে]

এখানে একটা জিনিস আপনি খেয়াল করে থাকবেন সন্ধি, সমাস, প্রকৃতি-প্রত্যয়, কারক-বিভক্তি ইত্যাদি বিষয় আপনি যতই মুখস্ত করে যান নিয়োগ গাইড থেকে তা হয়ত আপনি কমন পাবেন না পরীক্ষার হলে। এক্ষেত্রে এজাতীয় জিনিসের সংজ্ঞা জানা ও এগুলো নিয়ে ব্যাপক অনুশীলন যদি আপনার থাকে সেক্ষেত্রে যেখান থেকে যাই আসুক তার উত্তর করতে আপনি পারবেন। এজন্য বাংলার জন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হল টেবিলের উপরে রাখা যে কোন শ্রেণির বাংলা গ্রামার বইটি এই লেখাটি পড়া শেষ করেই টেনে বের করে মৌলিক বিষয় সমুহ বা ব্যাসিক গ্রামার বিষয়াবলি পড়া শুরু করুন। একটা বিষয় মনে রাখতে হবে গাইড সমুহের মলাটে যতই লেখা থাকুক ১০০% কমন পড়ার নিশ্চয়তা, সেটি কিন্তু কোন ভাবেই সত্য নয়। আর মুখস্ত বিদ্যা বরং ভয়ংকর।

এবার আসা যাক ইংরেজিতে কী করবেনঃ ইংরেজি বিষয়ে ও বাংলার মত একই পরামর্শ, ব্যাসিক ইংলিশ যথা- # Literature -1. Parts Of Speech -2. Tense/Right form of verb -3. Fill in the blank with appropriate/preposition -3. Verb, Gerund, Participle -3. Number, Gender -2. Voice -1. Narration -2. Sentence Correction -2. বিষয় সমুহের মৌলিক সংজ্ঞা জানা ও উক্ত সংজ্ঞার বাহিরে ব্যতিক্রমী রুলস সমুহ যে গুলো আছে সে গুলোর প্রাকটিস করা বেশি বেশি করে। [এখানে বিষয় ভিত্তিক কী কী প্রশ্ন আসতে পারে, তার মান সহ উল্লেখ করা হয়েছে]

এখানে খেয়াল করেন, মুখস্ত নির্ভর অংশ থেকে যা আসে: Spelling -1. Idioms & Phrase -2. Synonym+antonym -2. One Word Substitution -1. তা খুবই সামান্য এবং বেশি ভোকাবুলারি যদি আপনার গ্যাদার থাকে সেক্ষেত্রে আপনি এগুলো যাই আসুক আপনি পারবেন।

এখানে একটা জিনিস বলে রাখি, এ বয়সে সব কিছু হয়তো আপনার মুখস্ত করা সম্ভব নয়, মুখস্তের ক্ষেত্রে সবসময় সিমুলেশন ধরে মুখস্ত করবেন। যেমন ধরুন Canvas শব্দের অর্থ চিত্রপট আর Canvass শব্দের অর্থ ভোট চাওয়া। একটায় সিংগেল S আরেকটায় SS. এখানে আমি যেভাবে মনে রেখেছি সেটি হল, ভোট বা কোন কিছু ২ হাত পেতে চাইতে হয়। তথা Canvass এ ২ টি এস হবে। এভাবে মনে রাখলে আমি জীবনে ভুলবেন না বা ভুল করবেন না।

এবার আসা যাক গণিত বিষয়েঃ

গনিতে যারা ভালো তাদের অনেক সময় দেখা যায় ইংরেজিতে কাঁচা। এটা চিরন্তন সত্য। বিষয়টি হল এমন যাদের গাণিতিক বুদ্ধিমত্তা থাকে তাদের ভাষাভিত্তিক বুদ্ধিমত্তা সমান থাকে না। এক্ষেত্রে ক্লাস সিক্স থেকে শুরু করে ১০ম শ্রেণির পাটি,বীজ ও জ্যামিতিক মৌলিক গানিতিক সমস্যা সমুহ প্রাকটিস করলেই চলবে। বিগত সালের প্রশ্নের ধরণ অনুযায়ী দেখবেন অতি উচ্চ লেভেলের প্রশ্ন এখানে আসে না। গানিতিক বা ইংরেজি, বাংলার কোন বিষয়ে যা আসে, সে সমস্ত বিষয়ের কোন জায়গায় এখনো যদি আপনার পারঙ্গমতা না থাকে সেক্ষেত্রে আপনি যারা এবিষয়ে ভালো তাদের দারস্ত হতে পারেন। একটা বিষয় মাথায় রাখুন, এখন আপনার যে বয়স ছোট থেকে যা অস্পষ্টতা ছিল সে বিষয়টি এখন কেউ বুঝিয়ে দিলেই আপনার সেটি ধরার ক্ষমতা এসেছে। তাই না’পারা বিষয়টিতে আর ভয় নাই, এখনই সেই বিষয়টি কারোর কাছ থেকে লজ্জা না পেয়ে বুঝে নিন।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠ্য বইঃ

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের যে পাঠ্য বই সমুহ আছে বাংলা, ইংরেজি, গণিত, বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়, বিজ্ঞান, ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা এই বই সমুহের তৃতীয় থেকে ৫ম শ্রেণির সব বইয়ের নৈমিত্তিক প্রশ্ন ও অনুশীলনীতে থাকা প্রশ্নের উত্তরগুলো পড়ে পরীক্ষার হলে যাবেন এর থেকে বেশ কিছু প্রশ্ন আপনি পাবেনই পাবেন।

সহায়ক বই নির্বাচনঃ কিছু সহায়ক বই আছে যাতে সূত্র ভিত্তিক লেখা আছে, যা মনে রাখার জন্য খুব ভালো কাজ করে। এগুলোর নাম সরাসরি বলা সম্ভব নয়, তাই ইশারা-ঈঙ্গিতে বলছি মেড…, এমনি থ্রি ইত্যাদি। এসমস্ত বইয়ে মোঘল সম্রাটদের নাম মনে রাখার কৌশল যেমন ছোট বেলায় শিখে ছিলেন ‘বাবার হইল আবার জ্বর, সারিল ঔষধে’ এমনভাবে লেখা যা আপনার মনে রাখার জন্য দারুণ উপাদেয়।

এছাড়া ২১এর বইমেলা থেকে কিছু প্রকাশিত বিখ্যাত লেখকের বইয়ের লেখকের নাম আসতে পারে যা কোন গাইডেই থাকে না। সেক্ষেত্রে বিগত কয়েক সনে একুশে বইমেলায় প্রকাশিত বিখ্যাত গ্রন্থ গুলোর নাম নেট দুনিয়া বা অন্য যে কোন উপায়ে সংগ্রহ করতে পারেন। একটা কথা মনে রাখা দরকার বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও চাকুরীর পরীক্ষায় টেকার ক্ষেত্রে ১ নাম্বারের ব্যবধানের ক্ষেত্রে আপনার সিরিয়াল ৫০ জনের পিছনে চলে যেতে পারে।

পরীক্ষার সম্ভাব্য সিলেবাস দেখাঃ এই সহকারী শিক্ষক পদের চাকুরীতে বিগত সনের প্রশ্নের আলোকে যে যে বিষয়ে প্রশ্ন এসেছে তার কোনটি পড়তে বাদ রাখলে চলবেনা! প্রতিটি বিষয় যতদুর সম্ভব একবার হলেও চোখ বুলিয়ে যেতে হবে। ধরেন প্রশ্ন এসেছে মধু পালনকে কী বলে? এমন প্রশ্ন এসেছে। যার উত্তর এপি কালচার। এখন আপনাকে যানতে হবে মৎস্য পালনকে কী বলে? পাখি পালনকে কী বলে? এবিষয়ে সব কিছু।

উল্লেখ্য, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষার সম্ভাব্য সিলেবাস টি মনোযোগ সহ দেখে নিন এই লিংকে প্রবেশ করে।

প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষার সম্ভাব্য সিলেবাস

বিগত দশ বছরের প্রশ্নের উত্তরঃ

পাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় এটি যদিও সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা, তবু্ও প্রধান শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন সহ বিগত দশ বছরের একই পদে চাকুরী পরীক্ষার প্রশ্নের উত্তর সমুহ জানা থাকলে আপনি তার থেকে অনেক কিছু কমন পাবেন।

শুনছি আগামী ২ মাসের মধ্যেই নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এই পরীক্ষার জন্য জন্য এই দুমাসের কম সময় যদি আপনার প্রস্তুতির জন্য পর্যাপ্ত না হয়, তাহলেও এই বিষয় সমুহ মাথায় রেখে যদি আপনার চাকুরীর বয়স শেষ না হয়ে থাকে তবে আগামীর জন্য চেষ্টা করুন! চাকুরী আপনার হবেই হবে!! প্রাথমিকে না হোক এর পরের পরীক্ষা সমুহে আপনি ভালো করবেন ই করবেন। আর চাকুরীর বয়স শেষ সময়ে থাকলে প্রাণপণে চেষ্টা করুন, সফলতা আপনার দারপ্রান্তে। ত্রুটি মার্জনীয়।

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের এসাইনমেন্ট লেখার নিয়ম-কানুন

ডিবি-আর আর।

শিক্ষকদের চাকুরী স্থায়ীকরণে পুলিশ ভেরিফিকেশন নিয়ে যা হচ্ছে

ফেসবুকে লাইক দিন