২৬শে জুলাই, ২০২১ ইং, সোমবার, ১১ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

প্রাথমিকে যেভাবে মূল্যায়ন ও প্রমোশন দিতে হবে : জানালেন ডিজি

দৈনিক বিদ্যালয় ডেস্ক : করোনা কালীন প্রাদুর্ভাবের মধ্যে এবার পরীক্ষা না নিয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীকে পরবর্তী ক্লাসে তোলা হবে। এবার যার যে রোল নম্বর আছে, সেই রোল নম্বর নিয়েই পরবর্তী শ্রেণিতে উন্নীত হবে তারা।

১৫ থেকে ১১ গ্রেড পর্যন্ত বেতন হিসাব ২০১৫ জাতীয় বেতনস্কেল অনুযায়ী

চলতি ২০২০ সালের প্রথম আড়াই মাসের ক্লাস এবং করোনা কালীন সময়ে যেসকল শিক্ষা কার্যক্রম চালানো হয়েছে, তার ভিত্তিতে স্ব-স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক কর্তৃক শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করতে হবে।

২৩ নভেম্বর আজ প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহা পরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়ে বলেন, ‘চলতি বছরে প্রাথমিকে ১৬ মার্চ পর্যন্ত ক্লাস হয়েছে। সেসময়ে তাদের যে ক্লাস টেস্ট নেওয়া হয়েছে, এবং শিক্ষকরা যা পড়িয়েছেন, এখন সেসব মূল্যায়নে আনা হবে।’ হ্যা, তবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের বয়স বিবেচনা করে মাধ্যমিকের বিদ্যালয়ের মত অ্যাসাইনমেন্ট দেওয়া হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহা পরিচালক।

সহকারী শিক্ষকদের ১৩ তম গ্রেডের আইবাস++ এ ফিক্সেশনের অগ্রগতি কতদূর

তিনি বলেন, এসময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটির মধ্যে সংসদ টেলিভিশন, বেতার, কমিউনিটি রেডিও এবং জুমে যেসকল শিক্ষা কার্যক্রম চালানো হয়েছে, তার ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হবে। এছাড়া এই ছুটির মধ্যেও অনেক শিক্ষক শিক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পড়া দিয়ে পড়া আদায় করেছেন বলে জানা গেছে, সে সবও কিছু ও শিক্ষকরা মূল্যায়নে আনবেন।

অন্যদিকে শিক্ষকরা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেছেন, যার তথ্য-উপাত্ত ও শিক্ষকদের কাছে আছে, সেসবও মূল্যায়নে আনবেন শিক্ষকরা। এসকল বিষয় মূল্যায়ন করা হলে তা পরের শ্রেণিতে ওঠার ক্ষেত্রে কোনো রকম প্রভাব পড়বে না বলে জানান তিনি।

প্রাথমিকে প্রমোশনে মূল বেতন দুই হাজার দশ টাকা কম

মনসুরুল আলম বলেন, এবার আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো পরীক্ষা হচ্ছে এটা মাথায় রেখেই মূল্যায়ন করা হবে। শিক্ষকরা শিক্ষার্থীদের গত বছরে অর্জন করা রোল ফলো করবেন এবং সবাই পরের ক্লাসে প্রমোশন পাবে।

-ডিবি আর আর।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন