২৩শে অক্টোবর, ২০২১ ইং, শনিবার, ৮ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

প্রাথমিক শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেড সমস্যার সমাধান এক সপ্তাহের মধ্যে

দৈনিক বিদ্যালয় ডেস্ক : এখনো ১৩তম গ্রেডে বেতন না পাওয়ায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ডিজি আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম।

সোমবার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর ডিজি বলেন, ১৩ তম গ্রেড আইবাস++ এ আটকে থাকার বিষয়টি দুঃখজনক। উক্ত বিষয়টি নিয়ে আমি আজই অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলবো।

তিনি বলেন, আমি যতদূর জানি প্রোগ্রামিংয়ে সমস্যা হওয়ায় বিষয়টি আটকে ছিলো কিন্তু এতোদিন বিষয়টি আটকে থাকার কথা নয়। তিনি এক সপ্তাহের মধ্যে এ সমস্যাটির সমাধান করবেন বলে আশ্বাসও দেন।

সরকারি প্রাথমিক সহকারী শিক্ষকদের ১৩ তম গ্রেড দিয়ে ৯ ফেব্রুয়ারি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিষয়ক মন্ত্রণালয়। এরপর দীর্ঘ প্রায় ১০মাস পেরিয়ে গেছে কিন্তু নতুনভাবে দেওয়া ১৩তম গ্রেডে এখনো বেতন ভাতা সুবিধা পাচ্ছেন না প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকবৃন্দ। যারফলে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের মধ্যে এ নিয়ে মারাত্মক অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব নাজমা মোবারক জানান, আমরা অনলাইন প্লাটফর্মে অন্তর্ভুক্ত করে দিচ্ছি। দু’দিন আগেই প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন শাখা থেকে অনুমতি দেয়া হয়েছে।শিক্ষকরা খুব শিগগিরই ১৩ তম গ্রেডের বেতন ব্যাংক থেকে উত্তোলন করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, চলতি ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডে বেতনে দেয়ার সিদ্ধান্ত দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। কিন্তু হিসাব মহা নিয়ন্ত্রকের অফিসে আইবাস++ এর জটিলতায় ফাইল আটকে থাকায় দীর্ঘ ১০ মাস পার হলেও এখনো ১৩তম গ্রেডে শিক্ষকরা বেতন পাননি।

যোগ্যতাহীন প্রাথমিকের ২৫০০ শিক্ষক চাকুরীচ্যুত হতে পারে

মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন ১৫ থেকে ২৭ ডিসেম্বর : লটারি ৩০ তারিখে

প্রধান শিক্ষকদের টাইমস্কেল সংক্রান্ত দুটি মামলা ও দশম গ্রেড নিয়ে কিছু কথা

শিক্ষা ও শিক্ষক বিষয়ক খবর জানতে dainikbidyaloy.com লিখে নিয়মিত সার্চ দিন।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন