১লা আগস্ট, ২০২১ ইং, রবিবার, ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

উপবৃত্তির জন্য নগদ পোর্টাল উন্মুক্ত : শিক্ষকদের জন্য নির্দেশনা

দৈনিক বিদ্যালয় ডেস্ক : প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি বিতরণের জন্য নগদ লাইভ পোর্টাল উন্মুক্ত করা হয়েছে। এক্ষেত্রে নগদে শিক্ষার্থীর ছবির প্রয়োজন হবে না। হ্যা, তবে শিক্ষার্থীর নাম, জন্ম নিবন্ধন নং, শ্রেণি, রোল নং, জেন্ডার (লিঙ্গ), বেনিফিশারির নাম (উপকারভোগী), সম্পর্ক, বেনিফিশারি এনআইডি নং ও বেনিফিশারির মোবাইল নম্বর সরাসরি নেটে লিখে সাবমিট করতে হবে।

এ সম্পর্কে নিচের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেখে উপবৃত্তির শীট সাজিয়ে নিলে কম্পিউটার/ল্যাপটপের সামনে বসে সরাসরি আপলোড করতে পারবেন। “নগদ” উপবৃত্তি পোর্টালের লিংক হলঃ https://pesp.mynagad.com/login

উল্লেখ্য, ডাক বিভাগের (ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস) নগদের পোর্টালে উপবৃত্তি পাওয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য তথ্য এন্ট্রির কার্যক্রম শুরু হয়েছে। নতুন নিয়েমে প্রথমবারের মত সব প্রধান শিক্ষকদের নিজস্ব ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে তথ্য লাইভ এন্ট্রি করতে হচ্ছে। এছাড়া আগামী ১০ জানুয়ারির ২০২১ তারিখের মধ্যে উপবৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য এন্ট্রির করতে পারবেন প্রধান শিক্ষকরা। 

২৮ ডিসেম্বর, সোমবার উপবৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের জন্য তথ্য দিতে নগদ তাদের নিজস্ব পোর্টাল তথ্য এন্ট্রির জন্য উন্মুক্ত করেছে।  

এখন থেকে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা মোবাইল ব্যাংকিং সেবা নগদ এর মধ্যেমে পাঠানো হবে। শিগগিরই এ টাকা গভর্নমেন্ট টু পারসন পদ্ধতিতে সরাসরি শিক্ষার্থী বা অভিভাবকদের কাছে পাঠানো হবে। এই নতুন নিয়মে উপবৃত্তির টাকা দিতে শিক্ষার্থীদের তথ্য সংগ্রহে একটি অনলাইন পোর্টাল খুলেছে ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’।

আরও পড়ুনঃ শিক্ষকদের বিদ্যালয়ে উপস্থিত হওয়ার নির্দেশ দিয়ে পরিপত্র জারি অধিদপ্তরের

এবার যখন যেভাবে নতুন বই সংগ্রহ করতে হবে শিক্ষার্থীদের

প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বই জমাদান সম্পর্কিত নির্দেশনা

এবিষয়ে জানা গেছে, অভিভাবকদের যে মোবাইল নম্বর উপবৃত্তির টাকা দেয়ার জন্য পোর্টালে এন্ট্রি করবেন, সেটি অবশ্যই তার নিজ জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে নিবন্ধিত হতে হবে। এক্ষেত্র শিক্ষার্থীদের তথ্য অন্তর্ভুক্ত করতে প্রধান শিক্ষকদের কিছু নির্দেশনা ও দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। 

এছাড়া আরে জানাগেছে, নগদের পোর্টালে pesp.mynagad.com.bd/login তথ্য অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে প্রধান শিক্ষকদের ইএমআইএস কোডকে ইউজার আইডি হিসেবে ব্যবহার করতে হবে। যার পাসওয়ার্ড উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের মুঠোফোনে পাঠিয়েছে নগদ। এক্ষেত্রে প্রধান শিক্ষকবৃন্দ পাসওয়ার্ড নিজের সুবিধা মত রিসেট করতে পারবেন ও গোপনীয়তা রক্ষা করবেন। 

উক্ত নগদ পোর্টালের শর্ত হল, শিক্ষার্থীদের মায়ের জাতের পরিচয় পত্রের নম্বর ও সেই পরিচয় পত্র দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা সিম ব্যবহার করতে হবে। না থাকলে বৈধ অভিভাবকের মোবাইল নম্বর ও ব্যবহার করা যাবে।

এক্ষেত্রে পোর্টালে যে মোবাইল নম্বর দেয়া হবে তা অবশ্যই সচল ও অভিভাবকের আয়ত্বের মধ্যে থাকতে হবে। এক্ষেত্রে যারা শুধুমাত্র বার্ষিক পরীক্ষায় ৪০% নম্বর পাবে, তারাই শুধুমাত্র উপবৃত্তি পাওয়ার জন্য নির্বাচিত হবে। 

উল্লেখ্য, নগদ পোর্টালে ২০১৯-২০ সালের অর্থবছরে ৩য় কিস্তিতে যেসব শিক্ষার্থীর উপবৃত্তি দেয়া হয়েছিল তাদের তথ্য প্রদর্শিত হচ্ছে। এ তথ্য গুলো থেকে প্রয়োজন অনুযায়ী সংযোজন, বিয়োজন করে ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের উপবৃত্তির সুবিধাভোগীদের তালিকা ও ২০১৯-২০ অর্থবছরের ৪র্থ কিস্তির উপবৃত্তির টাকা বিতরণের উপযোগী চাহিদা পোর্টালে লাইভ এন্ট্রি আগামী ১০ জানুয়ারি মধ্যে শেষ করতে বলা হয়েছে। এ সম্পর্কিত একটি নির্দেশিকাও পোর্টালে সংযুক্ত করা আছে। এছাড়া এ পোর্টাল সংক্রান্ত হটলাইন নাম্বার হল ০৯৬০৯৬১৬১৬৭। 

শিক্ষার খবর জানতে dainikbidyaloy.com লিখে সার্চ দিন। শিক্ষার প্রিয় খবর ‘দৈনিক বিদ্যালয়’ অনলাইন পত্রিকার সাথে থাকুন, শিক্ষার খবরের সাথে থাকুন।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন