১২ দিন ধরে মাধ্যমিক ও প্রাথমিকে যেভাবে বই দেওয়ার নির্দেশনা মন্ত্রণালয়ের

শিক্ষা মন্ত্রণালয়

দৈনিক বিদ্যালয় ডেস্ক : ২০২১ শিক্ষাবর্ষের পাঠ্যবই বিতরণ অনুষ্ঠান ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা মহামারীর কারণে বাংলাদেশে এবার কোন বই উৎসব না হলেও শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই পৌঁছে দেয়া হবে। এছাড়া এখন পর্যন্ত বিদ্যালয় সমুহ না খুললেও পাঠ্য কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই এই বই বিতরণ করার কথা জানান তিনি।

প্রায় এক দশক ধরে পহেলা জানুয়ারিতে শিক্ষার্থীদের হাতে বই দেওয়া হলেও এবার শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুঁকি ও নিরাপত্তার কথা ভেবে এবারে সমাবেশ করে কোন বই উৎসব হচ্ছে না।

এবার একই দিনে সব শিক্ষার্থীর হাতে বই না দিয়ে, ভিন্ন আঙ্গিকে বিতরণ করা হবে।

এবিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অধিদফতরের নির্দেশনায় প্রদান করা হয়েছে।তাতে উল্লেখ্য যে, শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি মাথায় রেখে এ বছর প্রতিটি শ্রেণীর বই বিতরণের জন্য তিন দিন করে সময় দেয়া হবে। অর্থাৎ ৬ষ্ঠ, ৭ম, ৮ম, ৯ম- এই চারটি শ্রেণীতে সপ্তাহে তিন দিন করে মোট ১২ দিনে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করা হবে। প্রতিটি ক্লাসের শিক্ষার্থীরা তিন দিনে ভাগে ভাগে এসে বইগুলো নিয়ে যাবে। স্ব-স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে বলে দেয়া হবে যে কোনদিন কারা এসে বই সংগ্রহ করবে।

তাছাড়া প্রাথমিক শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার কথা ভেবে তাদের অভিভাবকদের হাতে বই তুলে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের। তিনি জানিয়েছেন, প্রত্যেক ক্লাসের জন্য তিন দিন বরাদ্দ থাকবে। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ একটি ক্লাসের শিক্ষার্থীদের তিনটা গ্রুপে ভাগ করে দিবে। একেকটি গ্রুপ একেক দিনে স্কুলে এসে বই নিয়ে যাবে, তবে প্রাথমিকে শিক্ষার্থীরা স্কুলে আসবে না। তাদের অভিভাবকরা স্কুলে এসে বই নিয়ে যাবে। এর কারণে জনসমাগম হবে না এবং বই বিতরণের পুরো প্রক্রিয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে করা হবে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীদের ইউনিক আইডির কার্যক্রম শুরু

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *