যে তথ্য হালনাগাদ না করলে বেতন পাবে না শিক্ষকরা

উচ্চ মাধ্যমিক মাধ্যমিক

দৈনিক বিদ্যালয় ডেস্ক :: ইএফটির মাধ্যমে জিটুপি পদ্ধতিতে এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের যথা প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও কলেজ শিক্ষক-কর্মচারীদের নিজ ব্যাংক হিসাবে সরাসরি বেতন-ভাতা পৌঁছে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। (ইতিমধ্যে এটির কাজ চলছে সারাদেশে প্রাথমিক স্তরে।)

এনিয়ে বৃহস্পতিবার, ৭ জানুয়ারি তারিখে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর এ সংক্রান্ত একটি অফিস আদেশ জারি করেছে। যাতে দেখাগেছে নয়টি তথ্য না দিলে শিক্ষকদের ব্যাংক একাউন্টে বেতন জমা হবে না।

উক্ত শিক্ষা মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের অফিস আদেশে জানানো হয়, অধিদপ্তরের আওতাধীন এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজ) শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিও (মান্থলি পে অর্ডার) জিটুপি (গভর্মেন্ট টু পারসন) পদ্ধতিতে ইএফটির (ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার) মাধ্যমে পাঠানো হবে।

উক্ত আদেশে আরও বলা হয়, এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিও এর অর্থ বিতরণ সহজ করার লক্ষ্যে অর্থ বিভাগের সচিবের সভাপতিত্বে গত বছর ২ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে সভা অনুষ্ঠিত হয়। যে সভায় মাধ্যমিক ও কলেজ শিক্ষক-কর্মচারীদের ‘এমপিও’ এর অর্থ দেয়ার জন্য শিক্ষক-কর্মচারীদের ব্যবহৃত ব্যাংক একাউন্টে জিটুপি পদ্ধতিতে ইএফটির মাধ্যমে পাঠানোর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এছাড়া ইতোমধ্যে অনলাইনে এমপিও সিস্টেমে প্রয়োজনীয় আপগ্রেডেশনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের আওতাধীন এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিও এর অর্থ ‘ইএফটি’ র মাধ্যমে পাঠাতে সঠিক তথ্য প্রয়োজন।

সেই আদেশে যেসকল তথ্য চাওয়া হয়েছেঃ

১# শিক্ষক-কর্মচারীদের এনআইডি বা জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর।

২# এসএসসি ও সমমানের সনদ অনুযায়ী শিক্ষক-কর্মচারীদের নাম। যা এসএসসি ও সমমানের সনদ অনুযায়ী এমপিও শিট ও জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম একই রকম হতে হবে।

৩# যাদের এসএসসি ও সমমানের সনদ নেই, তাদের সর্বশেষ শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ। যেটিও এমপিওশিট ও জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম একই রকম থাকতে হবে।

৪# যে হিসাব থেকে বেতন উত্তোলন করা হয়, সে ব্যাংক হিসাবের নাম শিক্ষক-কর্মচারীদের নিজ নামে থাকতে হবে।

READ MORE  আবার শুরু হচ্ছে মাধ্যমিকের এসাইনমেন্ট

৫# বেতন উত্তোলনকৃত ব্যাংকের নাম, শাখার নাম ও সেই শাখার রাউটিং নম্বর।

৬# শিক্ষক-কর্মচারীদের ব্যাংক হিসাব নম্বর। যা অনলাইন ব্যাংক হিসাব নম্বর হবে; ১৩ থেকে ১৭ ডিজিট এর হয়ে থাকে।

৭# এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্ম তারিখ।

৮# শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন কোড ও বেতন কোডের ধাপ এর তথ্য।

৯# শিক্ষক কর্মচারীদের মোবাইল নম্বর।

এসকল তথ্য সঠিক না থাকলে ইএফটি’ র মাধ্যমে পাঠানো এমপিও এর অর্থ শিক্ষক-কর্মচারীদের ব্যাংক হিসাবে জমা হবে না।

উল্লেখ্য, উল্লিখিত তথ্যসমুহ প্রতিষ্ঠান প্রধানের মাধ্যমে অনলাইনে সংগ্রহের জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে শিগগিরই ইএমআইএস বা ‘ইলেক্ট্রনিক ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম’ সফটওয়ারের লিংকসহ প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হবে বলে জানানো হয় সেই আদেশে।

শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের প্রিয় খবর ‘দৈনিক বিদ্যালয়’ এর সাথে থাকুন। শিক্ষা বিষয়ক সকল খবর পড়ুন এখানেই। দৈনিক বিদ্যালয়ের ফেসবুক পেইজ ‘ দৈনিক বিদ্যালয় ও প্রাথমিক শিক্ষা বার্তা’ য় পেইজ লাইজ বাটনে ক্লিক করে শিক্ষা বিষয়ক পরবর্তী নিউজের সাথে থাকুন।

-ডিবি, আর আর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *