২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, রবিবার, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

এর আগে গত ২২ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চলমান করোনাভাইরাস মহামারী পরিস্থিতির মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সমুহ পুনরায় খুলে দেয়ার মতো পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে কিনা, তা পর্যালোচনা করতে আজ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন।

দ্রুতই বিদ্যালয় খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত : প্রতিমন্ত্রী

দৈনিক বিদ্যালয় ডেস্ক :: ২৩ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার বিকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন, এম.পি বলেন, দেশের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয় দ্রুত খুলে দেয়ার বিষয়ে আমরা আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক করব এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে দ্রুত প্রাথমিক বিদ্যালয় সমুহ খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, আপনারা সকলেই জানেন, সারাবিশ্বের অনেকেই এখনো করোনা ভাইরাসের টিকা পায়নি, অথচ আমরা পেয়েছি। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমাদের টিকা নেওয়া এখন শেষ প্রায়।খুব সম্ভব ৭-৮ দিনের মধ্যে আন্তঃমন্ত্রণালয়ের একটা সভা হবে। সেখান থেকে আমরা সিদ্ধান্ত নেব যতদ্রুত সম্ভব…(বিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত আসতে পারে)। তিনি বলেন আমাদের করোনা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। আমরা বিদ্যালয় খুলে দেব বলে আশা করছি ইনশাআল্লাহ।

এর আগে গত ২২ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চলমান করোনাভাইরাস মহামারী পরিস্থিতির মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সমুহ পুনরায় খুলে দেয়ার মতো পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে কিনা, তা পর্যালোচনা করতে আজ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। যেটি বাংলাদেশ সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার সাপ্তাহিক বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে এক ব্রিফিংয়ে জানিয়ে দেন।

সেখানে মন্ত্রী পরিষদ সচিব আনোয়ারুল ইসলাম আরো বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সমুহ পুনরায় খুলে দেওয়ার ব্যাপারে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে আগামী ৫-৬ দিনের মধ্যে একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে বসব।’ সেই বৈঠকে প্রথমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সমুহ পুনরায় খুলে দেয়ার মতো পরিবেশ ও পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে কিনা, তা পর্যালোচনা করবেন। এরপর, এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এর আগে প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় তার সাথে ছিলেন, জেলা শিক্ষা অফিসার আনন্দ কিশোর সাহা, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান মো. সোলায়মান বিশ্বাস, নির্বাহী অফিসার একেএম হেদায়েতুল ইসলাম এবং উপজেলা শিক্ষা অফিসার কল্পনা রানী ঘোষসহ বেশ কিছু শিক্ষকর উপস্থিত ছিলেন।

১৭ তারিখের মধ্যে টিকা নিতে হবে শিক্ষকদের

বিদ্যালয় খোলার ব্যাপারে পরিস্থিতি পর্যালোচনা ও প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৭ ই মার্চ থেকে প্রায় একবছর যাবত করোনা পরিস্থিতির কারনে প্রায় সব ধরনের বিদ্যালয় বন্ধ আছে।

-ডিবি আর আর।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন