ঈদের আগেই শিক্ষার্থীদের জন্য উপবৃত্তি ও জামা-জুতা কেনার টাকা

প্রাথমিক

দৈনিক বিদ্যালয় ডেস্ক :: এই দফায় ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন নগদ বিতরণ করেছে আগে থেকেই জমে থাকা ২০২০ সালের এপ্রিল-জুন প্রান্তিকের উপবৃত্তির টাকা।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উপবৃত্তি সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, ঈদের আগেই আরো দুটি প্রান্তিকের উপবৃত্তিসহ ২০২১ সালের শিক্ষা উপকরণ কেনার ভাতাও পেয়ে যাবেন শিক্ষার্থীর অভিভাবকেরা।

যার ফলে শিক্ষার্থীদের ঈদের আনন্দ কিছুটা হলেও বৃদ্ধি পাবে।

এর আগে গত বছর কোভিড-১৯ এর শুরুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নগদসহ আরো তিনটি এমএফএস অপারেটরের মাধ্যমে ৫০ লক্ষ পরিবারকে পঁচিশ শত করে টাকা ঈদের উপহার পাঠিয়েছিলেন। যেখানে সবচেয়ে বেশি পরিমাণ পরিবারের কাছে সফলভাবে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পৌঁছে দিয়েছিল ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন সেবা নগদ।

এক বছরের বেশি সময় উপবৃত্তির টাকা বিতরণ বন্ধ থাকার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় গত বছরের ডিসেম্বর মাসে ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন সেবা ‘নগদ’-এর সঙ্গে চুক্তি করে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। পরবর্তীতে ‘নগদ’ এর মাধ্যমে উপবৃত্তির টাকা বিতরণের ফলে এক দিকে স্বচ্ছতা নিশ্চিত হয়েছে, অন্যদিকে ভূতুড়ে সুবিধাভোগীরাও বাদ পড়েছে। এছাড়া উপবৃত্তি ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণে সরকারের খরচ ও তিনভাগের একভাগে নেমে এসেছে।

এবিষয়ে জানতে চাওয়া হলে ‘নগদ’ এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, রাহেল আহমেদ বলেন, দেশের মানুষকে ঝামেলাহীন ও সহজ উপায়ে টাকা পৌঁছে দেওয়ার অঙ্গীকার নিয়ে ‘নগদ’-এর যাত্রা শুরু হয়েছিল। এর আগে যেভাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি দেওয়া হতো, সেখানে উপবৃত্তি দিতে সরকারের খরচ হতো ২১ টাকা। এখন সেখানে সেই খরচ মাত্র ৭ টাকায় নেমে এসেছে। এছাড়া সবচেয়ে বড় যে পরিবর্তন হয়েছে, তাহলো সুবিধাভোগীদের কাছে সরাসরি টাকা পৌঁছে দেওয়া ও সম্ভব হচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘প্রান্তিক পর্যায়ে যারা সরকারি সহায়তা উপভোগ করছেন, তাদেরকে প্রতারণা থেকে বাঁচতে আমরা সচেতন করতে চেষ্টা করছি। প্রত্যেক উপকারভোগীর কাছে আমরা আলাদাভাবে ফোন করে সচেতন করার জন্য ভয়েস কল ও মেসেজ দিয়েছি।

READ MORE  করোনা পজিটিভ বিদ্যালয়টিতে যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হল

উল্লেখ্য, নগদে টাকা এসেছে কিনা চেক করতে স্ব মোবাইল থেকে *167# চেপে তারপর নির্ধারিত ডিজিট চেপে চেক করা যায়।

-ডিবি আর আর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *