১৪ই মে, ২০২১ ইং, শুক্রবার, ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

ঈদের আগে ৬ মাসের উপবৃত্তির টাকা পাবে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উপবৃত্তি ও জামা জুতা কেনার টাকা আসছে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে

দৈনিক বিদ্যালয় : : প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জামা-জুতা কেনার জন্য এবার এককালীন বাড়তি এক হাজার করে টাকা পাবে।

আসন্ন ঈদুল ফিতরের আগেই এক সাথে ৬ মাসের উপবৃত্তির টাকা পাচ্ছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এর সাথে জামা-জুতা কেনার জন্য এককালীন আরও এক হাজার করে টাকা পাবে তারা।

এবিষয়ে জানা গেছে, বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন সেবা ‘নগদ’এর মাধ্যমে প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যায়ের এক কোটি ৪০ লাখ ক্ষুদে শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তির টাকা দিচ্ছে সরকার।

এর আগে, দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতারক চক্র শিক্ষার্থীদের মায়েদের কাছে মোবাইলে ফোন করে নগদের পিন নম্বর, ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড জানতে চেয়ে জালিয়াতি করে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

এ সকল কিছু বিবেচনা করে খুবই সতর্কতার সঙ্গে নতুন এই ৬ মাসের উপবৃত্তির টাকা ও সাথে আরো একহাজার টাকা, শিক্ষার্থীদের জামা জুতা কেনার জন্য মায়েদের কাছে পৌঁছানোর পরিকল্পনা করছে সরকার।

এছাড়া আরও জানা গেছে, করোনা পরিস্থিতির কারণে প্রায় এক বছর উপবৃত্তির টাকা প্রদান কার্যক্রম বন্ধ থাকে। এ সময়ের বকেয়া টাকা আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ঈদের আগেই মায়েদের মোবাইলে নগদের মাধ্যমে পৌঁছে যাবে বলে প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে।

এবিষয়ে জানতে চাওয়া হলে, প্রাথমিকে উপবৃত্তির প্রকল্প পরিচালক মো. ইউসুফ আলী সাংবাদিকদের বলেন, আগামী ১৫ দিনের মধ্যে গত ২০২০ সালের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ৬ মাসের উপবৃত্তির টাকা শিক্ষার্থীদের মায়েদের নগদ অ্যাকাউন্টে পৌঁছে যাবে।

ইউসুফ আলী বলেন, যেহেতু বিভিন্ন জায়গায় উপবৃত্তি প্রতারণার তথ্য পাওয়া যাচ্ছে, তাই আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ৫টি উপজেলায় এ-বিষয়ক পাইলটিং করা হবে। তাতে যদি সকল রিপোর্ট পজিটিভ থাকে তাহলে পরবর্তী এক সপ্তাহের মধ্যে সারাদেশে উপবৃত্তির টাকা পাঠিয়ে দেওয়া হবে। তিনি বলেন, মূলতঃ উপবৃত্তির টাকা হাতিয়ে নেওয়া প্রতারক চক্রের প্রতারণা এড়াতে আমাদের এ কৌশল অবলম্বন করা। এ বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক, আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সাথেও আমরা আলাপ করেছি। সকলের সতর্ক দৃষ্টি থাকবে।

তিনি আরও বলেন, গত বছরের ৬ মাসের ও সাথে সাথে জামাজুতা কেনার এই অর্থ নিরাপদে পাঠানোর পর পরবর্তীতে এবছরের তিন মাসের টাকা পাঠানো হবে। অর্থাৎ চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চের অর্থ পাঠানো হবে। এই অর্থটি আগামী মে থেকে জুন মাসের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে পাঠানো হবে।

উল্লেখ্য, করোনার মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি বিতরণের এই প্রকল্প বন্ধ ছিল গত প্রায় এক বছর। এরমধ্যে গত ডিসেম্বর মাসে ‘নগদ’-এর সঙ্গে চুক্তি করে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। চুক্তি সম্পাদন করার তিন মাসের মধ্যে প্রায় ১ কোটি ৫০ লক্ষ শিক্ষার্থী ও তাদের মায়েদের তথ্যসহ ডাটাবেজ তৈরি করা হয়েছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সহযোগিতায়।

জানাগেছে, এবার ২০২০ সালের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত উপবৃত্তির টাকা পাবে মোট ১ কোটি ৪০ লক্ষের মত শিক্ষার্থী।

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বললেন ‘৩৩৩’ এ ফোন দিতে

বেতন-বোনাস নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে বেসরকারি শিক্ষকদের চিঠি

প্রাথমিক বিদ্যালয় সমুহের জন্য ওয়াই-ফাই

আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের জন্য চালু হচ্ছে প্রোগ্রামিং ও কোডিং

যেভাবে আইডি কার্ড পাবেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা

-ডিবি আর আর।

ফেসবুকে লাইক দিন