২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, মঙ্গলবার, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উপবৃত্তি নগদ পোর্টালে এন্ট্রির জন্য করণীয়

নগদে উপবৃত্তির চাহিদা আপলোড

ডিবি ডেস্ক :: প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য উপবৃত্তির ও জামা-জুতা-ব্যাগ কেনার জন্য বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অনলাইনে তথ্য এন্ট্রি করতে হচ্ছে। এক্ষেত্রে বিশেষ কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে শিক্ষকদের। সেই সমস্যাগুলোর সমাধান করার নিয়ম নিম্নে তুলে ধরা হল।

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের উপবৃত্তি এন্ট্রিকরণ বিষয়ে নির্দেশনাঃ

#Kit Allowance Save না নিলে করণীয়ঃ

১। প্রথমে Class Selection করতে হবে।

২। একজন Student এর তথ্য Select করে Delete করতে হবে।

৩। Delete করার পর Save করতে হবে।

৪। এরপর ঐ একই Class Selection করে Delete করা Student এর তথ্য পুনরায় আবার এন্ট্রি করে Kit Allowance এবং Month Select করে Save করতে হবে।

৫। Kit Allowance Save হবে।

৬। এই পদ্ধতি একবার করলেই হবে। একান্তই না হলে আবার করতে হবে।

# নগদ পোর্টালে Save না নিলে করণীয়ঃ

১। নতুন করে পোর্টালে Log in করতে হবে।

২।Data Entry Q3 তে প্রবেশ করার পর,

৩। View/Edit Option এ ক্লিক করুন।

৪। All Classes ক্লিক করে ১ থেকে ৪ যে কোন Class Select করবেন।

৫। এরপর Save করবেন।

৬। (Save option এর পাশে বাকি সব Option Show করবে)।

৭। তারপর যে Class এ তথ্য এন্ট্রি করবেন, সেই Class Select করে তথ্য এন্টি করে Save করলে

৮। তথ্য Save হয়ে যাবে।

#নগদ পোর্টালে মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করতে হলেঃ

১। প্রথমে মোবাইল নম্বরটি Delete করুন। ২। এরপর Save করুন। ৩। Save Successful হওয়ার পর নতুনভাবে মোবাইল নম্বর এন্ট্রি করে Save করলে পরিবর্তিত নম্বরটি Save করা হয়ে যাবে।

# যে সকল জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর শূন্য দিয়ে শুরু সে সকল নম্বর নগদ পোর্টালে এন্ট্রি করার নিয়মঃ

১। NID কার্ড এর Date of Birth এর ৪ সংখ্যার সাল প্রথমে লিখতে হবে। এরপর জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর লিখে Save দিতে হবে।

২। ০(শুন্য) দিয়ে শুরু জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর Save হয়ে যাবে।

৩। একটি উদাহরনঃ জাতীয় পরিচয় পত্র কার্ডে Dath of Birth দেয়া আছে ১০ মে ১৯৮২ অথচ ID নম্বর দেয়া আছে 0912519892816. এক্ষেত্রে পোর্টালে প্রথমে লিখতে হবে 1982. এরপর শূন্য দিয়ে শুরু NID নম্বর লিখতে হবে। যথাঃ 19820912519892816.

৪। যে সব বিদ্যালয় এর পোর্টালে NID নম্বর ফাকা দেখাচ্ছে, তাদের সবার NID শূন্য দিয়ে শুরু হয়েছিল। সেকারনে হেড টিচারের নতুন করে উল্লেখিত পদ্ধতিতে জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর পোর্টালে Save করতে হবে।

৫। উল্লেখ্য, সুবিধাভোগীর উপবৃত্তির টাকা সুরক্ষিত করার জন্য উক্ত পদ্ধতি নগদ পোর্টালে ব্যবহার করা হয়েছে।

#ছাত্র-ছাত্রী ৫ম বা ৮ম শ্রেণপাস গেছে যারাঃ

তাদের শ্রেণী বা Class এর কোন কাজ প্রধান শিক্ষকদের করতে হবে না। এছাড়া Delete করারও প্রয়োজন নেই। ৫ম বা ৮ম শ্রেণী ক্লাস উত্তীর্ণ হবার পর ছাত্র-ছাত্রীরা আর উপবৃত্তি ও Kit Allowance পাওয়ার যোগ্য নহে।

এক্ষেত্রে ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার, অভিভাবকের নাম এবং জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে একই পরিবারের ভাই বা বোন কে অন্তর্ভুক্ত করা সম্ভব না হলে, পাস করে যাওয়া ছাত্র-ছাত্রীর তথ্য Delete করে Save করে তারপর একই পরিবারের ভাই বা বোনকে Pass out student এর ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার, অভিভাবকের নাম এবং জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে (এন্ট্রি) করে Save করতে হবে। এখন তথ্যটি Save হয়ে যাবে।

শিক্ষা ও চাকুরী বিষয়ক সর্বশেষ আপডেট পেতে ‘দৈনিক বিদ্যালয়’ অনলাইন পত্রিকাটি নিয়মিত সার্চ দিন।

ডিবি আর আর।

শিক্ষক সহ নিম্ন গ্রেডে চাকুরীজীবীদের বেতন বাড়া : ১০ টাকা থেকে ৩৫০ টাকা

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন