২০শে জুন, ২০২১ ইং, রবিবার, ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

মাধ্যমিক ও কলেজ শিক্ষার্থীদের ইউনিক আইডির ৭টি নির্দেশনা

শিক্ষা মন্ত্রণালয় : মাধ্যমিক ও কলেজের ইউনিক আইডি

ডিবি ডেস্ক :: শিক্ষার্থীদের ইউনিক আইডি প্রদানের লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের প্রােফাইল ও ডেটাবেজ প্রণয়নের জন্য তথ্যছক পূরণ সংক্রান্ত এক আদেশে ২৫ মে মঙ্গলবার বলা হয়েছে যে,

বাংলাদেশ শিক্ষাতথা ও পরিসংখ্যান ব্যুরাে (ব্যানবেইস) কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন “Establishment of Integrated
Educational Information Management System (IEIS)” শীর্ষক প্রকল্পের মাধ্যমে Civil Registration and Vital statistics (CRVS) ব্যবস্থার আলােকে শিক্ষার্থীদের urique identification Number (UID) প্রদানের কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।

ইতােমধ্যে এ সংক্রান্ত ডেটাবেজ প্রণয়ন ও শিক্ষার্থীর তথ্য সংগ্রহের লক্ষ্যে সল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বরাবর প্রয়ােজনীয় সংখ্যক তথা ফরম প্রেরণ করা হয়েছে এবং একই সঙ্গে এ সংক্রান্ত কার্যক্রম বাস্তবায়নের সময়সীমার Gantt Chart প্রেরণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন : দুটি সমস্যার সমাধান হলে যত দ্রুত সম্ভব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবে

চাকুরীজীবীদের মাতৃত্বকালীন ছুটির বিশেষ সুবিধা বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়বে : আসতে হবে ৫ শতাংশ

এই ইউনিক আইডি সংক্রান্ত আদেশে আরও বলা হয়েছে, কোডিভ-১৯ অতিমারীর কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় উল্লিখিত সময়সীমা মধ্যে তথ্যছক শিক্ষার্থীদের নিকট সরবরাহ এবং তথ্যছক পূরণের পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জমা প্রদানে বিঘ্ন ঘটছে। তবে স্বাস্থ্য ঝুঁকির বিষয় বিবেচনায় নিয়ে সতর্কতার সঙ্গে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কর্তৃক তথ্যছক পূরণের কার্যক্রম গ্রহণ করা যেতে পারে।

০২। শিক্ষার্থীদের পুরণকৃত তথ্যছকের তথ্য জন্মনিবন্ধন কর্তপক্ষের ডেটাবেজে প্রেরণের পর ইউনিক আইডি প্রাপ্তির ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের অনলাইন জন্মনিবন্ধন প্রয়ােজন। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের ম্যানুয়াল জন্ম নিবন্ধন থাকলে জন্ম নিবন্ধন কর্তৃপক্ষের ডেটাবেজ থেকে তাদের ইউনিক আইডি পাওয়া যাবে না।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের ইউনিক আইডি সংক্রান্ত সর্বশেষ আপডেট

১। রক্তের গ্রুপ নির্ণয় বাধ্যতামূলক নয়।
২। এসএসসি ও এইচএসসি-২০২১ পরীক্ষার্থীদের জন্যেও এটা প্রযোজ্য।
৩। শিক্ষার্থীদের পিতা ও মাতার যে কোনো একজনের NID দিলেও হবে।
৪। পিতা-মাতার জন্ম নিবন্ধন তথ্য প্রদান বাধ্যতামূলক নয়।
৫। শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন অবশ্যই অনলাইনে হতে হবে।
৬ । শিক্ষার্থীদের পিতা বা মাতার যে কোনাে একজনের এনআইডি নম্বর, নাম, জন্ম তারিখ প্রভৃতি তথ্যছকে প্রদান করতে হবে।

শিক্ষার্থীর পিতা বা মাতার তথ্য এনআইডি কর্তৃপক্ষের ডেটাবেজ থেকে তথা যাচাইয়ের জন্য প্রেরণ করা হবে। এনআইডি এর তথ্য প্রদান করলে পিতা-মাতার জন্মনিবন্ধন তথ্য প্রদান বাধ্যতামূলক নয়। তবে এনআইডি না থাকলে পিতা বা মাতার অনলাইন জন্ম দিনের প্রয়োজন হবে।

০৪। শিক্ষার্থীদের রক্তের গ্রুপ ফরমে প্রদান বাধ্যতামূলক নয়। এক্ষেত্রে রক্তের গ্রুপ পরবর্তী সময়ে প্রদান করা যেতে পারে।

০৫। ২০২১ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরিক্ষার্থীদেরও তথ্যছক পূরণ করতে হবে। এই তথ্যছক পূরণের পর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষকদের দ্বারা ডেটা এন্ট্রির কাজ শুরু করতে হবে।

৬। শিক্ষার্থীদের জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে সংগ্রহের ক্ষেত্রে সমস্যা হলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান অথবা অভিভাবকগণকে সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নজরে আনার জন্য অনুরােধ করা হলাে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ/পৌরসভা কর্তৃপক্ষের এবং জেলা পর্যায়ে উপ-পরিচালক (স্থানীয় সরকার), জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নজরে আনার জন্য অনুরােধ করা হলাে।

এ সকল বিষয়ে উপজেলা/থানা মাধ্যামিক শিক্ষা অফিসার ও জেলা শিক্ষা অফিসারগণ প্রয়ােজনীয় সহযােগিতা প্রদান করবেন।

০৭। তথ্যছক পূরণের বিষয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক শিক্ষার্থী বা অভিভাবকের নিকট থেকে অর্থ গ্রহণ করতে পারবেন না।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কর্তৃক উক্ত কার্যক্রম বাস্তবায়নে যাতে কোনাে প্রকার হয়রানি বা ভােগান্তি এবং স্বাস্থ্য ঝুঁকির সৃষ্টি না হয় সে বিষয়ে সর্তক থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরােধ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন : এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে দুই মত প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টাদের

মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট প্রকাশ

খুলনা বিভাগীয় শিক্ষার নতুন ডিডি আব্দুল খালেক

ডিবি আর আর।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন