১লা আগস্ট, ২০২১ ইং, রবিবার, ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

পেনশন মঞ্জুরির পূর্বেই কোন সরকারি কর্মচারীর মৃত্যু হলে যে যে কাগজপত্র লাগবে

সরকারি চাকরিজীবীদের পেনশন

ডিবি ডেস্ক : : পেনশন মঞ্জুরির পূর্বেই সরকারি কোন কর্মচারীর মৃত্যু হইলে ‘সরকারি কর্মচারীদের পেনশন সহজীকরণ আদেশ ২০২০’ এর অনুচ্ছেদ ৪.০৯ এর উপ অনুচ্ছেদ ‘খ’ অনুযায়ী নিম্ন তালিকা অনুযায়ী যে সকল কাগজপত্র লাগবে তা নিম্নে তুলে ধরা হল।

এক্ষেত্রে তথা পারিবারিক পেনশন প্রাপ্তির ক্ষেত্রে আনুতােষিক ও অবসর ভাতা পাইবার জন্য নিম্নবর্ণিত ফরম, সনদ ও কাগজপত্রাদি সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক কর্তৃপক্ষ/হিসাবরক্ষণ অফিসে দাখিল করিতে হইবে।

এছাড়া প্রশাসনিক অফিস বা হিসাবরক্ষণ অফিস ইহার অতিরিক্ত কোনাে ফরম, সনদ ও কাগজপত্রাদি চাহিতে পারিবেনা।

হ্যা, তবে প্রতিবন্ধী সন্তান থাকলে তার জন্য
আজীন পারিবারিক পেনশন মঞ্জুরির ক্ষেত্রে অনুচ্ছেদ ৩.০৩ অনুসরণে ব্যবস্থা গ্রহণ করিতে হইবে।

উচ্চতর গ্রেড কারা পাবেন, কারা পাবেন না

কর্মচারীদের সরকারীভাবে হাউজ লোন কার্যক্রম শুরু : যারা, যেভাবে পাবেন এই লোন

কর্মচারী, কর্মকর্তা ও শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য : কারোর বেড়েছে ৪২৫০ কারোর ৬২ হাজার

চাকুরীজীবীদের মাতৃত্বকালীন ছুটির বিশেষ সুবিধা বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি

এবার আলোচনা করা যাক কোন সরকারি কর্মচারীর পেনশন মঞ্জুরীর পূর্বেই যদি মারা যায়, তাহলে কী কী কাগজপত্র জমা দিতে হইবে।

১। পারিবারিক পেনশন আবেদন ফরম ২.২ (সংযােজনী-৫) ০১ কপি জমা দিতে হইবে।

২। মৃত্যু সরকারি চাকরিজীবী নন গেজেটেড হলে কর্মচারীগণের সার্ভিস বুক জমা দিতে হইবে।

# গেজেটেড কর্মচারীগণের ক্ষেত্রে সর্বশেষ ৩ বৎসরের চাকরির বিবরণী ০১ কপি করে জমা দিতে হইবে।

৩। কর্মচারীর অবসর ও পিআরএল এর গমনের মঞ্জুরিপত্র (প্রযােজ্য ক্ষেত্রে) ০১ কপি জমা দিতে হইবে।

৪। কর্মকর্তা বা কর্মচারীর প্রত্যাশিত শেষ বেতনপত্র/শেষ বেতনপত্র (প্রযােজ্য ক্ষেত্রে) ০১ কপি জমা দিতে হইবে।

৫। সরকারি চাকরিজীবীর (স্বামী/স্ত্রী উত্তরাধিকারীগণের) ০৪ কপি করে সত্যায়িত ছবি জমা দিতে হইবে।

৬। উত্তরাধিকারীগণের জাতীয় পরিচয়পত্র/জন্ম নিবন্ধন (উত্তরাধিকারী/উত্তরাধিকারীগণের বয়স ১৮ বৎসরের নিচে হইলে জন্ম সনদ এবং বয়স ১৮ বৎসরের উপরে হইলে জাতীয় পরিচয়পত্র) ০১ কপি করে জমা দিতে হইবে।

৭। সরকারি চাকরিজীবীর উত্তরাধিকার সনদপত্র ও সন্তানদের ননম্যারিজ (অবিবাহিত) সার্টিফিকেট (সংযােজনী-৩) ০৩ কপি করে জমা দিতে হইবে।

৮। নমুনা স্বাক্ষর ও হাতের পাঁচ আঙ্গলের ছাপ (সংযােজনী-৬) ০৩ কপি করে জমা দিতে হইবে।

৯। অভিভাবক মনােনয়ন এবং অবসর ভাতা ও আনুতােষিক উত্তোলন করিবার জন্য ক্ষমতা অর্পণ সনদ (সংযােজনী-৭) ০৩ কপি করে জমা দিতে হইবে।

১০। মৃত্যু চাকুরীজীবি মারা গেছেন এর প্রমাণ স্বরুপ চিকিৎসক/ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিল/ পৌরসভার মেয়র/ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কর্তৃক প্রদত্ত মৃত্যুসনদপত্র ০১ কপি জমা দিতে হইবে।

১১। না-দাবী প্রত্যয়নপত্র (সংযােজনী-৮) ০১ কপি জমা দিতে হইবে।

১২। এছাড়া মৃত্যু ব্যক্তির চাকুরী স্থায়ীকরণের/নিয়মিতকরণের আদেশ (উন্নয়ন প্রকল্প হইতে রাজস্ব খাতে স্থানান্তরিত, আত্মীকরণের মাধ্যমে যােগদানকৃত, এডহক ভিত্তিতে নিয়ােগকৃতদের ক্ষেত্রে প্রযােজ্য) ০১ কপি চাকুরী স্থায়ী করণের কপি জমা দিতে হইবে।

১৩। মৃত্যু ব্যক্তির প্রতিবন্ধী সন্তান (যদি থাকে) সেক্ষেত্রে নিবন্ধন, পরিচয়পত্র ও মেডিকেল বাের্ডের সনদপত্র ০৩ কপি জমা দিতে হইবে।

ডিবি আর আর।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন