বয়স শেষ দেড় লক্ষের বেশি চাকুরীপ্রার্থীর : মন্ত্রণালয়ের আশ্বাস

চাকুরী

ডিবি ডেস্ক :: দেশের ললক্ষাধিক বেকার চাকুরী প্রার্থীদের দূর্গতির শেষ নেই। এত দিনে তিলে তিলে গড়ানো স্বপ্নের সলিল সমাধি হতে চলেছে তাদের।

এই লক্ষ বেকারের একজন দেশের স্বনামধন্য এক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স-মাস্টার্স শেষ করেছে রাকিব উদ্দিন। তার চাকুরীর আবেদনের বয়স শেষ হয়েছে প্রায় ৬ মাস। চলতি কভিড-১৯ এর কারণে গত এক বছরে আসেনি তেমন কোনো বিজ্ঞপ্তি। রাকিব করতে পারেনি চাকুরীতে আবেদনও। বেকার জীবনের একটাই ইনকাম সোর্স টিউশনিও বন্ধ হওয়ায় তার সামনে এখন উত্তাল সাগরের ঢেউ।

আরও পড়ুন : এবারও সরকারি চাকুরীর আবেদনে বয়সের ছাড়

এরই মধ্যে রাকিবের মত আরো দেড় লক্ষের বেশি চাকুরী প্রার্থী চাকুরীর বয়স শেষ হয়েছে। এক বছরের বেশি সময় ধরে তেমন কোনো নিয়োগ পরীক্ষায়ও বসেনি তারা।

এদিকে মন্ত্রণালয় বলছে তাদের এ ক্ষতি কীভাবে পোষানো যায় তা নিয়ে পরিকল্পনা করছি আমরা। এছাড়া পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দেওয়া হবে আটকে থাকা প্রজ্ঞাপন বা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি।

এবিষয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের আগের সিদ্ধান্ত ছিল ২০২০ সালের ২৫ মার্চ যাদের বয়স ৩০ বছর হয়েছে তারা আরও ৫ মাস তথা ২৫ আগস্ট পর্যন্ত আবেদনের সুযোগ ছিল। তবে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় বলছে, এই চাকুরী প্রার্থীদের ক্ষতি কীভাবে পোষানো যায় তা নিয়ে কাজ করছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এছাড়া যেসব চাকুরীর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ আটকে আছে সেগুলো করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর পরই প্রকাশ করা হবে বলেও আশ্বস্ত করেছে মন্ত্রণালয়।

চাকুরী বয়স নিয়ে এর ইতিহাস চর্চায় দেখা গেছে। বাংলাদেশে একসময় সরকারি চাকুরীতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স ছিল ২৫ বছর। স্বাধীন বাংলাদেশের শুরু দিক থেকেই এই বয়স ২৭ বছরে উন্নীত করা হয়। এরপর ৮০ র দশকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় সেশনজটের ফলে শিক্ষার্থীদের অধিকাংশ স্নাতক, বিশেষত স্নাতকোত্তর শিক্ষা ২৭ বছর বয়সের মধ্যে শেষ করতে পারছিল না। ১৯৭৫ থেকে ১৯৯০ পর্যন্ত প্রায় ১৫ বছরের সামরিক-আধা সামরিক শাসনের পর নতুনভাবে দেশে সংসদীয় গণতন্ত্র ফিরে এলে সরকার বিষয়টি অনুধাবন করে ১৯৯১ সালে চাকরিতে প্রবেশের বয়স তিন বছর বাড়িয়ে ৩০ বছরে উন্নীত করা হয়। এখন অবশ্যই চাকুরী প্রার্থীদের দাবী সরকারি চাকুরীতে প্রবেশের বয়স সীমা ৩৫ করা হউক!

READ MORE  করোনার কারণে কয়েকটি সরকারি চাকুরীর পরীক্ষা স্থগিত

এই বয়স শেষ হয়ে যাওয়া নিয়ে চাকুরীপ্রত্যাশীদের নিয়ে কাজ করা সংগঠনগুলো বলছে, করোনাকালে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়েছে মাত্র ১৩%। যা অন্য সময়ের তুলনায় ৮৭% কম। ঠিক এই সময়ে চাকুরীর বয়স শেষ হয়েছে দেড় লক্ষের বেশি চাকুরী প্রার্থীর। এই সংকট কাটাতে চাকুরীতে আবেদনের বয়স বাড়ানোর দাবি লক্ষ শিক্ষিত বেকারের।

ডিবি আর আর।

Follow Our Twitter: CLICK HARE



Join telegram Channel : CLICK HARE

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *