২২শে অক্টোবর, ২০২১ ইং, শুক্রবার, ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিক্ষকদের টাইমস্কেলে হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেলে তাকে সরিয়ে নেওয়া হবে

প্রাথমিক শিক্ষকদের টাইমস্কেল

ডিবি ডেস্ক :: দেশের সরকারি প্রাথমিক শিক্ষকদের টাইমস্কেল পাওয়ার সময় হলেই নানান জটিলতায় ফাইল আটকে যায়। এর কারণ খুঁজতে যেয়ে দেখা গেছে, অসাধু কর্মকর্তারা বাড়তি টাকা আদায় করতে এমনটা করে বলে অভিযোগ। এবিষয়ে একশনে যাবে অধিদপ্তর। সম্প্রতি এ অভিযোগ আমলে নিয়ে মাসিক সমন্বয় সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে এখন থেকে ফাইল আটকে রাখলে অভিযুক্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিষয়টি নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বলেন, প্রাথমিক শিক্ষকদের টাইমস্কেল সময়মতো না দেওয়ার বিষয়ে বিভিন্ন সময় অভিযোগ আছে। যদি এরপর এমন অভিযোগ পাওয়া যায়, আমরা সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করব।

তিনি আরও বলেন, আমার প্রাথমিক শিক্ষকরা যদি সময়মতো বেতন না পান, টাইমস্কেল না পান; তবে যে দেরি করাচ্ছেন তার কাজটা কী? তিনি আরও বলেন, আমি যদি খবর পাই কেউ ফাইল আটকে রেখেছেন তার বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেবো। সেই পদ থেকে তাকে সরিয়ে নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন : মসজিদের ভেতর শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা

প্রাথমিক শিক্ষার সার্বজনীনতা কতদূর : বিলাল মাহিনী

বয়স শেষ দেড় লক্ষের বেশি চাকুরীপ্রার্থীর : মন্ত্রণালয়ের আশ্বাস

অধিদপ্তরের গত মে মাসের মাসিক সমন্বয় সভার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য ১৫ জুন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর থেকে এ সংক্রান্ত কয়েকটি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। যার মধ্য থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের টাইমস্কেল পাওয়ার ক্ষেত্রে হয়রানি করা যাবে না। সভার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সকল বিভাগীয় উপপরিচালক, জেলা শিক্ষা অফিসার, সকল উপজেলা ও থানা শিক্ষা অফিসারদের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়।

প্রাথমিক শিক্ষকদের টাইমস্কেল প্রদান বিষয়ে নির্দেশনা

টাইমস্কেলের টাকা ফেরত না দিতে ৪৯ হাজার প্রাথমিক শিক্ষকের আপিল

উল্লেখ্য, এছাড়া অনিয়মের অভিযোগে সরকারি প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন-ভাতা বন্ধ না রেখে বিভাগীয় বা ডিপার্টমেন্টাল ব্যাবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

-ডিবি আর আর।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন