২৩শে অক্টোবর, ২০২১ ইং, শনিবার, ৮ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সহকারী ও গ্রন্থাগারিক পদে নিয়োগ স্থগিত কেন : সচিবের কাছে জানতে চেয়েছে ডিজি

বিষয় : গ্রন্থগারিক ও সহকারী গ্রন্থগারিক পদে নিয়োগ

নিজস্ব প্রতিবেদক :: মাদ্রাসায় সহঃগ্রন্থাগারিক ও গ্রন্থাগারিক পদের নিয়োগ কেনো স্থগিত রাখা হয়েছে তা কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিবের কাছে জানতে চেয়েছেন মাদ্রাসা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। এ মর্মে ২২ জুন ২০২১ খ্রিঃ মাদ্রাসা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে একটি নোটিশ জারি করা হয়েছে।

গত ০৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ থেকে মাদ্রাসায় সহঃগ্রন্থাগারিক ও গ্রন্থাগারিক পদে নিয়োগের ডিজি(মহা পরিচালক) প্রতিনিধি প্রধান বন্ধ রাখা হয়েছে মাদ্রাসা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে। সে সময় (০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১) মাদ্রাসাসমূহে এই পদ দুটিতে নিয়োগের জন্য ১৬টি শর্তপূরণ সাপেক্ষে আবেদনের নিমিত্তে একটি নোটিশ প্রকাশ করে এই দুটি পদের ডিজি প্রতিনিধি দেওয়া বন্ধ রাখা হয়। ১৬টি শর্ত পূরণের সুপারিশ সচিবের অনুমতির জন্য পাঠানো হলেও এখন পর্যন্ত এর অনুমোদন দেওয়া হয় নি। অপর দিকে মাদ্রাসাগুলো শর্তপূরণ সাপেক্ষে ডিজি প্রতিনিধির আবেদন করা শুরু করলেও অধিদপ্তর থেকে জানানো হয় কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগ থেকে মৌখিক নির্দেশের কারণে এই দুই পদে ডিজি প্রতিনিধি দেওয়া থেকে অধিদপ্তর বিরত আছে। শতশত মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের দাবির পরও মাদ্রাসা অধিদপ্তর ডিজি প্রতিনিধি না দেওয়ার কোনো আনুষ্ঠানিক কারণ জানাতে পারে নি। এমতাবস্থায় ২২ জুন একটি নোটিশের মাধ্যমে মাদ্রাসা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের পক্ষ থেকে কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিব বরাবর এ বিষয়ে দ্রুত আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত জানানোর আবেদন জানানো হয়েছে।

আবেদনে উল্লেখ করা হয় পদদুটির প্রতিনিধির জন্য একাধিক প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে প্রতিদিনই সরাসরি অধিদপ্তরে যোগাযোগ করা হয়। এছাড়া অধ্যক্ষ মাও: আব্দুর রশিদের নাম উল্লেখ পূর্বক একাধিক মাদ্রাসার অধ্যক্ষের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে আবেদনের কথা নোটিশে উল্লেখ করা হয়।

তাছাড়া গত ০৩ ফেব্রু ২০২১ তারিখে মাদ্রাসায় এ পদে নিয়োগের জন্য ১৬ শর্ত পূরণের একটি খসড়া নীতিমালা কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগে পাঠানো হয়, তারও কোনো সিদ্ধান্ত এখন পর্যন্ত জানানো হয় নি বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়।

এতে আরো বলা হয়, মাননীয় শিক্ষা উপমন্ত্রীর পক্ষ থেকেও এ বিষয়ে “দ্রুত সিদ্ধান্ত নিন” মর্মে আদেশ দেওয়া হয়।

বিষয়টি সম্পর্কে মাদ্রাসা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (দাখিল ও এবতেদায়ি মাদ্রাসা) জান্নাতুন নাহারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি দৈনিক বিদ্যালয়কে জানান, প্রতিনিয়ত পদ দুটির ডিজি প্রতিনিধি চেয়ে অসংখ্য আবেদন অধিদপ্তরে জমা পড়ে, কিন্তু কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের মৌখিক নির্দেশে আমরা এগুলোর প্রতিনিধি ইস্যু করা স্থগিত রেখেছি। আমরাও মূলত জানি না কেনো এমন নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাই আমরা এ বিষয়ে দ্রুত আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত প্রকাশের জন্য সচিব বরাবর আজ (২২জুন) আবেদন জানাই।

কবে নাগাদ এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত আসতে পারে এবং ডিজি প্রতিনিধি ছাড় দেওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু জানতে চাইলে তিনি জানান, নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না যে কবে নাগাদ সচিব মহোদয়ের পক্ষ থেকে এব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসবে। আবার ডিজি প্রতিনিধি প্রদান শুরু হবার ঘোষণা দেওয়া হবে কিনা অন্য কোনো সিদ্ধান্ত জানানো হবে সে ব্যাপারে আমরা এখনো কোনো ইঙ্গিত পাই নি।

মাদ্রাসায় সহকারী গ্রন্থাগারিক ও গ্রন্থাগারিক পদের নিয়োগে সৃষ্ট এরূপ সমস্যা দ্রুত সমাধানের প্রেক্ষিতে ২২ জুনের নোটিশের মাধ্যমে এ বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত প্রদানে কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিব মোঃ আমিনুল ইসলাম খান বরাবর মাদ্রাসা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক- কে এম রুহুল আমিন আবেদনটি করেন। আবেদনটি সহকারী পরিচালক (সরকারি ও সিনিয়র মাদ্রাসা) আফাজ উদ্দিনের স্বাক্ষরে নোটিশ আকারে প্রকাশ করা হয়।

-ডিবি এবিএস।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন