২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, মঙ্গলবার, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সমুহের জন্য জরুরি নতুন নির্দেশনা

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের নির্দেশনা

দৈনিক বিদ্যালয় ডেস্ক :: প্রতিবারের ন্যায় এবার ও যথাযোগ্য মর্যাদায় আগামী ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শোক দিবস পালনের নির্দেশ আগেই দেয়া হয়েছে। এদিন জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে বলে জানানো হয়েছে। হ্যা, তবে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে কীভাবে ওড়াতে হবে, সে বিষয়ে ১০ আগস্ট, মঙ্গলবার নির্দেশনা জারি করেছে সরকার।

আরও পড়ুন : সকল প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার নির্দেশ

আজ বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় শোক : যে তিনটি কাজ করতে হবে

প্রাথমিক বিদ্যালয় সমুহে শিক্ষকদের শহীদ দিবস পালন করতে হবে যেভাবে

সেই নির্দেশনায় বলা হয়, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছাড়াও সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, বেসরকারি ভবন ও বিদেশে বাংলাদেশ মিশনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়, ১৫ আগস্ট সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলনকালে পতাকাটি প্রথমে সোজাভাবে দণ্ডায়মান পতাকাদণ্ডে রশির সাহায্যে পতাকাদণ্ডের মাথা পর্যন্ত উত্তোলন করতে হবে। এরপর দণ্ডের মাথা থেকে পতাকার প্রস্থের সমান নিচে নামিয়ে পতাকাটি বাঁধতে হবে। দিন শেষে পতাকাটি নামানোর সময় আবার দণ্ডের মাথা পর্যন্ত উত্তোলন করতে হবে এবং এরপর ধীরে ধীরে জাতীয় পতাকাটি নামাতে হবে।

এছাড়া পতাকা বিধিতে আরও বলা হয়েছে, জাতীয় পতাকার রং হবে গাঢ় সবুজ এবং সবুজের ভেতরে একটি লাল বৃত্ত থাকবে। পতাকার দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থ এর অনুপাত হবে ১ঃ৬। এবং আয়তাকার ক্ষেত্রের গাঢ় সবুজ রঙের মাঝে লাল বৃত্ত এবং বৃত্তটি পতাকার দের্ঘ্যের এক-পঞ্চমাংশ ব্যাসার্ধবিশিষ্ট হতে হবে।

পতাকা বিধিতে ভবনে উত্তোলনের জন্য পতাকার ৩ ধরনের মাপ হলঃ দৈর্ঘ্য ১০ ফুট, প্রস্থ ৬ ফুট; দৈর্ঘ্য ৫ ফুট, প্রস্থ ৩ ফুট এবং দৈর্ঘ্য ২.৫ ফুট, প্রস্থ ১.৫ ফুট।

এছাড়া ছেঁড়া বা বিবর্ণ জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা যাবে না। মানসম্মত কাপড়ে যথানিয়মে তৈরি জাতীয় পতাকা উত্তোলন করতে হবে বলেও সেই নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়।

ডিবি আর আর

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন