২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, মঙ্গলবার, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

হাসপাতালে নয়, যেভাবে মারা গেলেন বাবুনগরী

ফাইল ফটো : জুনায়েদ বাবুনগরী

নিজস্ব প্রতিবেদক :: হাটহাজারী মাদরাসার শাইখুল হাদিস ও হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী আর নেই। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

এর আগে জুনায়েদ বাবুনগরী এর খাদেম এইচএম জুনায়েদ ও তার নাতি বরকতুল্লাহ বাবুনগরী তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। এবং তার খাদেম এইচএম জুনায়েদ জানান, চট্টগ্রাম নগরীর সিএসসিআর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা ১২টা ৫০ মিনিটের সময় তার মৃত্যু হয়েছে।

কিন্তু একাধিক সূত্র বলছে, বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে তিনি না ফেরার দেশে চলে যান এবং চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এবিষয়ে হাটহাজারী মাদ্রাসার মাসিক পত্রিকা ‘মুঈনুল ইসলাম’ এর নির্বাহী সম্পাদক মুনির আহমদ জানান, হাসপাতালে নেওয়ার পথে বেলা ১২ টায় তিনি ইন্তেকাল করেছেন।  হাসপাতালে নেওয়ার পর ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

জুনায়েদ বাবুনগরীর লাশ এখন চট্টগ্রামের বেসরকারি হাসপাতাল সিএসসিআরে রয়েছে এবং তার জানাজা অনুষ্ঠানের সময় পরে জানানো হবে।

এছাড়া আল্লামা বাবুনগরীর ভাগ্নে ওসমান সাদেক বৃহস্পতিবার দুপুরে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে লেখেন, অবশেষে না ফেরার দেশে চলে গেছেন  বড় মামা জুনাইদ বাবুনগরী।

মাওলানা জুনাইদ, যিনি বাবুনগরীর খাদেম ছিলেন তিনি জানান, বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে বাবুনগরীর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে এবং বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে তার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়। এরপর দ্রুত অ্যাম্বুলেন্স ডেকে তাকে নিয়ে হাসপাতালের দিকে রওনা হলে  পথেই তার মৃত্যু হয়।

উল্লেখ্য, গত ৮ আগস্ট দুপুরে চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলায় গাড়িতে বসে করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন জুনায়েদ বাবুনগরী। তিনি হেফাজতের প্রতিষ্ঠাতা আমির আল্লামা আহমদ শফির মৃত্যুর পরে হেফাজতের আমিরের দায়িত্বে আসেন। ৬৭ বছর বয়সি দেশের অন্যতম শীর্ষ আলেমে দ্বীন আল্লামা বাবুনগরী দীর্ঘদিন ধরে হৃদরোগ, কিডনি ও ডায়াবেটিসসহ বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন। -ডিবি আর আর।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন