২৬শে অক্টোবর, ২০২১ ইং, মঙ্গলবার, ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য পূণরায় জরুরি নির্দেশনা

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জন্য জরুরি নির্দেশনা

দৈনিক বিদ্যালয় রিপোর্ট :: পূণরায় দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পর দেশের কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে করোনা আক্রান্ত শিক্ষক-শিক্ষার্থী পাওয়া গেছে। সেকারণেই এবার করোনা আক্রান্ত ও করোনার লক্ষণ পাওয়া শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের বিষয়ে করণীয় নির্ধারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য আরও জরুরি নির্দেশনা দিয়েছে সরকার।

আরও খবরঃ প্রাথমিকের নতুন কারিকুলামে বাড়ছে না ক্লাস

২টি পরীক্ষার বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসল

প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলী শুরু সফটওয়্যারের কাজ শেষে

২৫ সেপ্টেম্বর, রবিবার অধিদপ্তর স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত এক আদেশ বলা হয়, দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে গত ১২ সেপ্টেম্বর, রবিবার থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের আওতাধীন সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পুনরায় শ্রেণি কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর-মাউশি থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পুনরায় চালুর জন্য একটি গাইডলাইন, নির্দেশিকা এবং স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর বা এসওপি জারি করা হয়েছে।

এছাড়া অধিদপ্তর থেকে জারিকৃত নির্দেশনায় আরও বলা হয়, মনিটরিং চেকলিস্টের মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাত্যহিক তথ্য সংগ্রহ করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর পাঠানো হচ্ছে। সেই আদেশে বলা হয়, করোনা সংক্রমণ রোধে আরও কিছু পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি। সেগুলো নিম্নে উল্লেখ্য।

অধিদপ্তরের নির্দেশিত জরুরি পদক্ষেপ সমুহঃ

১. প্রত্যেক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা শ্রেণিকক্ষে প্রবেশের পর প্রথমেই শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সম্বন্ধে খোঁজ-খবর নিতে হবে।

২. কোন শিক্ষার্থীর পরিবারের কেউ করোনা আক্রান্ত বা করোনার লক্ষণ যেমনঃ জ্বর, সর্দি, কাশি ইত্যাদি আছে কিনা তার খোঁজ নিতে হবে।

৩. বিদ্যালয়ের শিক্ষক কোনও শিক্ষার্থী বা তার পরিবারের কারও করোনা বা করোনার লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত সেই শিক্ষার্থীকে আইসোলেশনে রেখে বাড়িতে পাঠানোর ব্যবস্থা করবেন।

৪. এবং সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধান ওই শ্রেণিকক্ষের শিক্ষক এবং সব শিক্ষার্থীর দ্রুততম সময়ের মধ্যে করোনা টেস্ট করার ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

উল্লেখ্য, উক্ত আদেশটি পরিচালক মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা (সব অঞ্চল), উপ-পরিচালক মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা সব অঞ্চল, সব জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এবং সব উপজেলা বা থানা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তাদের আওতাধীন সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে বিষয়গুলো অবহিতকরণ ও বাস্তবায়নের জন্য তত্ত্বাবধান করতে হবে। এছাড়া সর্বোচ্চ গুরুত্বের সঙ্গে উপরোক্ত বিষয়গুলো তদারকি ও প্রয়োজনীয় সহযোগিতা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। -ডিবি আর আর।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন