১৭ই মে, ২০২২ ইং, মঙ্গলবার, ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

শিক্ষার্থীর সামনেই শিক্ষককে লাঞ্চিত

প্রতীকী ছবি

দৈনিক বিদ্যালয় : শিক্ষক লাঞ্চিত হওয়ার এক সপ্তাহ পার হতে না হতেই পাবনার ঈশ্বরদীতে আবারও এক শিক্ষককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার ঘটনা ঘটেছে। ২ এপ্রিল, শনিবার সকালে শহরের মশুরিয়াপাড়ার গোলাম হোসেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষককে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন এক অভিভাবক। জানা গেছে, মাসুম হোসেন নামের সেই অভিভাবকের মেয়ে উল্লেখিত বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণিতে পড়ে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, সকালে মাসুম বিদ্যালয়ে গিয়ে তার মেয়েকে মারধরের অভিযোগ এনে শ্রেণিকক্ষ থেকে এক সহকারী শিক্ষককে জামার কলার ধরে বারান্দায় টেনে-হিচড়ে বের করে আনেন। এরপর শিশু শিক্ষার্থীদের সামনেই তাকে চড় মারেন তিনি। যে সময়ে বিদ্যালয়ের বহুতল ভবন নির্মাণ কাজে জড়িত একজন এগিয়ে গেলে তাকেও গালাগাল করেন ওই অভিভাবক। এরপর বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষকরা ক্লাস থেকে বাইরে এসে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান।

ঘটনার পর শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের মধ্যে তীব্র ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। এরপর শিক্ষকরা স্কুলে জরুরি সভার আয়োজন করে অভিভাবক মাসুমের বিরুদ্ধে মামলা করার সিদ্ধান্ত নেন। খবর পেয়ে ঈশ্বরদী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকে সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফাসহ অন্যরা ওই বিদ্যালয় পরিদর্শনে আসেন।

এবিষয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক সামসুন্নাহার জানান, এ ঘটনায় আমরা তাৎক্ষণিকভাবে স্কুলে জরুরি সভা করেছি এবং ঘটনাটি শিক্ষা কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. আসাদুজ্জামান বলেন, খবর পেয়েই একজন সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তাকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়ে ঘটনার সত্যতা পেয়েছি। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং এটি আইনের মাধ্যমেই এ সমস্যার সমাধান হবে।

এবিষয়ে ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিএম ইমরুল কায়েস বলেন, এ ঘটনায় আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং ঈশ্বরদী থানায় অভিভাবক মাসুম হোসেনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য এর আগে গত ২৬ মার্চ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে অতিথি না করায় উপজেলার বাশুরিয়া এলাকায় একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিত করেন স্থানীয় এক ইউপি সদস্য। সে ঘটনায়ও মামলা রুজু করা হয়েছে। তবে এখনও ইউপি সদস্যকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়নি স্থানীয় পুলিশ।

-ডিবি আর আর।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে লাইক দিন