করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গ শুরু হয়েছে বাংলাদেশে

বিবিধ

করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় তরঙ্গ বাংলাদেশে আঘাত হেনেছে এবং এই ধাক্কা মোকাবেলায় স্বাস্থ্য বিভাগ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে বলে বুধবার জাহিদ মালেক, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন।

রাজধানী ঢাকার একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে যেয়ে জাহিদ মালেক বলেন: ‘করোন ভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় তরঙ্গ দেশে শুরু হয়েছে এবং এটি মোকাবেলায় চিকিৎসক ও নার্সসহ স্বাস্থ্য বিভাগ স্থানীয় পর্যায়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে।’

এ বিষয়ে চ্যানেল 24 মন্ত্রীর বরাত দিয়ে জানিয়েছে, সরকার এখনও এই মহামারীতে লকডাউনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, জনগণ যদি স্বাস্থ্য নির্দেশিকাগুলি না মানে তবে সংক্রমণের হার বাড়তে পারে। অবশ্যই, শীতকালে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলিতে সামাজিক ইভেন্টগুলিতে বেশি বেশি লোক সমাগম হয়।

বিশিষ্ট ভাইরোলজিস্ট মোস্তাক হোসেন আনাদোলু এজেন্সিকে বলেছিলেন যে, এখনও করোনাভাইরাস দ্বিতীয় তরঙ্গের কোনও বৈজ্ঞানিক সংজ্ঞা নেই, এছাড়া সংক্রমণটি সর্বনিম্ন স্তরে এসে পরে আবার উত্থান হয়। এবং, যখন প্রতিদিনের সংক্রমণের হার ৫% বা ১০% এর নীচে নেমে আসে তখন আমরা বলতে পারি সংক্রমণের হার নেমে এসেছে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশে দৃশ্যমান যে সংক্রমণটি এখনও চলছে এবং এটি এখনও ১০% এর নিচে নেই। তিনি আরও বলেন, গ্রীষ্মের বা শীতের সাথে এই ভাইরাসের কোনও সম্পর্ক নেই।

তবে শীতকালে এদেশে অনেক সভা-সমাবেশ এবং সামাজিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে যা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে অন্যথায় সংক্রমণ আরও বাড়তে পারে বলে তিনি সতর্ক করেন।

ডাঃ মহিউদ্দিন আহমেদ খান, হিমাটোলজিস্ট এবং করোনা সম্পর্কিত জাতীয় প্রযুক্তি পরামর্শক কমিটির সদস্য, হোসেন ও একই ধরনের আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

তিনি সরকার কর্তৃক নির্ধারিত সুরক্ষা নির্দেশনা মানতে জনগণের অনীহা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন এবং বলেন, “অসম্পূর্ণ রোগীর সংখ্যা বাড়ছে এবং শীতকালে আরও বেশি পরিমাণ মানুষ সংক্রমিত হতে পারে।”

গত সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, শীতকালে বাংলাদেশে করোনা বড় ধরনের আঘাত হানতে পারে এবং দ্বিতীয় তরঙ্গের জন্য আগে থেকে প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য প্রশাসনের নির্দেশনা দিয়েছেন।

READ MORE  দোকানপাট খুলছে রবিবার থেকে : মন্ত্রী পরিষদের প্রজ্ঞাপন

আরও পড়ুনঃ প্রাথমিকে ২৬ হাজার ও ১৪ হাজারের বিশাল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি আসছে

সূত্রঃ Anadolu Agency

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *